বন্ধ হওয়া পত্রিকা ‘ডেইলি অ্যাপল’ কিনতে ভিড়

বন্ধ হওয়া পত্রিকা 'ডেইলি অ্যাপল' কিনতে ভিড়
বন্ধ হওয়া পত্রিকা 'ডেইলি অ্যাপল' কিনতে ভিড়

নিউজ ডেস্ক: চীনের আধা-আধাস্বায়ত্তশাসিত হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী সংবাদপত্র ‘ডেইলি অ্যাপল’ নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইনের আওতায় সরকারি দমনপীড়নের মুখে প্রকাশনা শুরুর ২৬ বছর পর বন্ধ হয়ে গেল ।

পত্রিকাটির শেষ সংস্করণ ছাপা হয়েছে এজন্য বৃহস্পতিবার রাত থেকেই এর কপি সংগ্রহ করতে লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন পাঠকেরা।

এক বিবৃতিতে বিবিসি জানায়, শেষ দিন ডেইলি অ্যাপলের ১০ লাখ কপি ছাপা হয়েছে। আর যারা পত্রিকা কিনতে এসেছিলেন তাদের অনেকের মুখেই ছিল বিষণ্নতার ছাপ।

ডেইলি অ্যাপলের শেষ সংস্করণ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নানা খবর এসেছে। অনেকেই হতাশা প্রকাশ করেছেন। শেষ সংস্করণে হেড লাইন করা হয়েছে, ‘বিদায় হংকংবাসী’।

পত্রিকা কিনতে আসা স্যান স্যাং বলেন, একটি যুগ শেষ হয়ে গেল বলে আমি মনে করি। হংকং কেন একটি সংবাদপত্রকেও সহ্য করতে পারে না, জানিনা।

গণতন্ত্রপন্থী অ্যাপল ডেইলি চীন ও হংকংয়ের শাসকদের তীব্র সমালোচক হিসেবে পরিচিত। ট্যাবলয়েডটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তিন প্রতিষ্ঠানের বড় অংকের সম্পদ জব্দ করেছে কর্তৃপক্ষ।

এর আগে ডেইলি অ্যাপলের ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু না থাকায় পত্রিকাটি চালু রাখা নিয়ে অনিশ্চয়তার কথা জানিয়েছিলেন উপদেষ্টা মার্ক সিমন।

তিনি বলেন, জব্দ করা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলে না দিলে এটি বন্ধ হওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র। পরে পতিকাটি বন্ধের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ।

গত বছরের মে মাসে চীনের পার্লামেন্টে জাতীয় নিরাপত্তা আইনের খসড়া প্রস্তাব উত্থাপনের পর হংকংয়ে চলছে গণবিক্ষোভ।

সেই বিক্ষোভের খবর প্রকাশের জের ধরেই অ্যাপল ডেইলির প্রধান সম্পাদক রায়ান ল ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা চুং কিম-হুমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হংকং পু্লিশ।

বিবিসি ও এএফপির খবরে বলা হয়েছে, রায়ান ও চুং কিম-হুমের পাশাপাশি পত্রিকাটির চিফ অপারেটিং অফিসার চাও তাত-কুয়েন, ডেপুটি চিফ এডিটর চান পুই-মান,চিফ এক্সিকিউটিভ এডিটর কাই-ওয়াইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের গ্রেপ্তারের পরদিন থেকেই গ্রাহক সংখ্যা ক্রমাগত বাড়তে থাকে অ্যাপল ডেইলির।

চীনের পার্লামেন্টে ২০২০ সালের জাতীয় নিরাপত্তা আইন পাস করে। নতুন আইনে রাষ্ট্রদ্রোহ, রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী কাজ কর্ম নিষিদ্ধ করার জন্য কড়া পদক্ষেপের কথা বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে হংকংয়ে ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সি প্রতিষ্ঠার উল্লেখ রয়েছে।

চীন ও হংকংবাসীর মৌলিক স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে চীন দাবি করছে।

ওই আইনের বিরুদ্ধে হংকংয়ে বিক্ষোভ চলছে আড়াই বছরেরও বেশি সময় ধরে। পুলিশের অভিযোগ, অ্যাপল ডেইলি ২০১৯ সাল থেকে আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে ৩০টিও বেশি ‘বিতর্কিত’ নিবন্ধ ছাপিয়েছে।

চীনা নেতৃত্বের কঠোর সমালোচনামূলক নিবন্ধ ছাপায় অ্যাপল ডেইলি হংকংবাসীর মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। ২০১৯ সালে চীনবিরোধী এক সমাবেশে সরব উপস্থিতিরি কারণে গ্রেপ্তার করা হয় পত্রিকাটির ধনাঢ্য মালিক জিমি লাইকে।

দমে না গিয়ে অ্যাপল ডেইলি সমালোচনামূলক নিবন্ধ ছাপতে থাকে। এর ফলে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার দেখানো হয় পত্রিকাটির ৫ শীর্ষ কর্মকর্তাকে।