গাজীপুরে সামান্য বৃষ্টিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা

গাজীপুরে সামান্য বৃষ্টিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা
গাজীপুরে সামান্য বৃষ্টিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা

শেখ রাজীব হাসান, গাজীপুর প্রতিনিধি: পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যাবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই ভয়াবহ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে জিসিসি’র ৪৭ নং ওয়ার্ড শিলমুন ব্যাপারী পাড়া, মাষ্টার পাড়া ও মোল্লার গ্যারেজ এলাকায়। এতে ঘরবন্দী হয়ে পরে প্রায় দেড় হাজারের অধীক পরিবার। একাধীকবার এবিষয়ে দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

সামান্য বৃষ্টিতে পানি নিষ্কাসনের ব্যাবস্থা না থাকায় উপরে উল্লেখিত এলাকা গুলোর অসংখ্য বসত বাড়ীতে হাটু থেকে কোমড় পর্যন্ত উচ্চতায় পানি জমা হয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে কোটি টাকার আসবাপত্র। এই এলাকায় বসবাসকারী শ্রমজীবী মানুষগুলো মানবেতর জীবন যাপন করছে। ড্রেনেজ ব্যাবস্থা না থাকায় আটকে পড়া পানির মাধ্যমে বাসা বাড়ীতে মল, মুত্রসহ যোগ, কেচো, বিষধর সাপ ও পোকা মাকড় ছড়িয়ে পড়ছে। এতে ডায়রিয়া, কলেরাসহ বিভিন্ন ধরনের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু, বৃদ্ধসহ সকল বয়সের শ্রমজীবী মানুষ। চলাচলের রাস্তায় হাটু থেকে কোমড় পানি হওয়ায় বাজার, ঘাট ও মসজিদ, মাদ্রাসায় যেতে পারছেনা শ্রমজীবী মানুষ।

স্থানীয়রা জানান, দ্রেনেজ ব্যাবস্থা না থাকায় এলাকায় প্রতিবারের বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। ঘরের ভিতরে থাকা ফ্রিজ, খাট, আলমারি, পড়ার টেবিলসহ ভাড়াটিয়াদের সকল আসবাপত্র নষ্ট হয়ে গেছে। চার বছর যাবত এমনি ভাবে দিন কাটাচ্ছি। স্থানীয় কাউন্সিলরকে বিকল্প ব্যাবস্থা করার জন্য বহুবার জানালেও তিনি এবিষয়ে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। বিভিন্ন পত্র, পত্রিকায় ও মিডিয়ার মাধ্যমে মেয়র সাহেবকে অনুরোধ করে বলেছি দয়া করে আমাদের এই ভোগান্তি থেকে মুক্ত করেন। আমরা বাচতে চাই। জলাবদ্ধতায় আমরা খাবার জন্য পানিটাও গ্রহন করতে পারছি না। নর্দমার পানিতে আমরা দিশেহারা হয়ে যাচ্ছি। আমাদের বাচান।

এ বিষয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর সাদেক আলী বলেন, যে সকল জায়গায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় সেসকল জায়গায় রাস্তা ও ড্রেনের কাজ বিভিন্ন প্রকল্পের দ্বারা চলমান আছে।