গৌরীপুরে ভূমিসহ নতুন ঘর পেল ২৫টি পরিবার

গৌরীপুরে ভূমিসহ নতুন ঘর পেল ২৫টি পরিবার
গৌরীপুরে ভূমিসহ নতুন ঘর পেল ২৫টি পরিবার

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা:  “মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, দেশে থাকবে না ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার” এই প্রতিপাদ্য সামনে রেখে গৌরীপুরের ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ভূমিসহ ঘর প্রদান করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় মুজিব শতবর্ষ উপলেক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে জমিসহ পাকা বাড়ি প্রদান করা হয় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারগুলোর মাঝে।

রবিবার সকাল ১১.১০ টায় ময়মনসিংহের গৌরীপুরে স্থানীয় পাবলিক হলে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনাড়ম্বর পরিবেশে গৃহপ্রদান উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনশেষে সুবিধাভোগীদের হাতে ঘরের চাবি, জমির দলিল, মাঠপর্চা, দাখিলা, ডিসিআর তুলে দেন উপজেলা প্রশাসন এবং জনপ্রতিনিধিগণ।

গৌরীপুর উপজেলার ২৫টি ভূমিহীন পরিবারের নিকট ভূমি ও গৃহ হস্তান্তর উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান মারুফ। সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবিদুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন খান, গৌরীপুর উপজেলা
আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ হেলাল উদ্দিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা, রামগোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আমিন জনি, উপজেলা প্রকৌশলী আবু সালেহ মোঃ ওয়াহেদ প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ, সহনাটী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মান্নান, বিভিন্ন
স্তরের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাগণ, সাংবাদিক ও সুবিধাভোগীরা।

গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসান মারুফ জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ এর সার্বিক দিকনির্দেশনায় প্রত্যেক সুবিধাভোগীর নামে ২ শতাংশ সরকারি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদানপূর্বক কবুলিয়ত দলিল রেজিস্ট্রেশন, নামজারি সম্পন্নকরণ ও গৃহ প্রদানের সনদ সুবিধাভোগীদের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে। এতে দুটি কক্ষ, রান্নাঘর ও শৌচাগারসহ বিদ্যুৎ ও বিশুদ্ধ পানীয় জলের সুবিধা রয়েছে।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবিদুর রহমান জানান, ২য় ধাপে উপজেলার ভাংনামারী ইউনিয়নে ১০ জন, ২নং গৌরীপুর ইউপিতে ০৮ জন, সহনাটি ০২ জন, মইলাকান্দা ০১ জন ও মাওহা ইউনিয়নে ০৪ জনকে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি আরও জানান ৮টি ঘর বৃষ্টির কারণে মাটি নরম থাকায় নির্মান করা হয়নি, তবে দ্রুত ঘরটি নির্মান করার ব্যবস্থা করা হবে।