শেরপুরে অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে চোর আটক

শেরপুরে অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে চোর আটক
শেরপুরে অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে চোর আটক

শেরপুর প্রতিনিধি:  শেরপুরে অভিনব কায়দায় ব্যাংকে চুরি করতে গিয়ে আটক হয়েছে শামীম মিয়া (২৮) নামে এক চোর। মঙ্গলবার (১৫ জুন) রাতে সদর উপজেলার লছমনপুর ইউনিয়নের শেরপুর-জামালপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে কৃষি ব্যাংকের কুসুমহাটি বাজার
শাখায় এ ঘটনা ঘটে। আটককালে ব্যাংকের সিকিউরিটি গার্ড আনোয়ার
হোসেনকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে ।

ধৃত শামিম সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের বয়ড়া পরানপুর গ্রামের আব্দুল
খালেকের ছেলে। বুধবার সকালে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া ও ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পু‌লিশ ও স্থানীয়রা জানায়, অন্যান্য দিনের মতো কুসুমহাটিস্থ কৃষি ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দৈনন্দিন কাজ শেষে ১৫ জুন বিকেলে ব্যাংক তালাবদ্ধ করে যার যার মত চলে যান। কিন্তু ব্যাংক বন্ধ করার পূর্বেই ধৃত চোর শামীম সুকৌশলে ব্যাংকে চুরি করার উদ্দেশ্যে সবার অগোচরে ব্যাংকের একটি টেবিলের নিচে লুকিয়ে থাকে। ওই অবস্থায় ব্যাংকের সিকিউরিটি গার্ড আনোয়ার হোসেন দায়িত্ব পালন করতে রাত সাড়ে ৮টার দিকে ব্যাংকে ঢুকে টিভি দেখে তার মোবাইল ফোন মাথার কাছে রেখে বিছানায় শুয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। হঠাৎ রাত দেড়টার
দিকে জেগে দেখেন তার মোবাইল ফোন এবং ব্যাংকের গেইটের চাবি নেই। তখন বিছানা থেকে দাঁড়ানো মাত্র চোর শামীম তার মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাতে রক্তাক্ত জখম করে।

ওইসময় সিকিউরিটি গার্ড চিৎকার শুরু করলে শামীম সিকিউরিটি গার্ডের মোবাইল ফোনটি ব্যাংকের ভিতরে ফেলে রেখে ব্যাংকের দোতলার গেইটের চাবি দিয়ে গেইট খুলে নিচে নেমে পড়ে। কিন্তু নিচতলার মূল গেইট তালা দেওয়া থাকায় সে পালাতে না পেরে সিঁড়ির গোড়ায় বাথরুমে লুকিয়ে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ ব্যাংকে পৌঁছামাত্র সিকিউরিটি গার্ড দোতলার জানালা দিয়ে মূল গেইটের চাবি নিচে ফেলে দিলে পুলিশ চোর শামীমকে আটক করে এবং আহত সিকিউরিটি গার্ড আনোয়ার হোসেনকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনসুর আহাম্মদ বলেন, ব্যাংকে অভিনব কায়দায় চুরির চেষ্টার ঘটনায় চোর শামীমকে আটক এবং সিকিউরিটি গার্ড আনোয়ার হোসেনকে আহতবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদিকে ব্যাংকের ভল্টের তালাসহ বিভিন্ন আলমারির তালা সুরক্ষিত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

ধৃত চোর শামীম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, সে ব্যাংকে লুকিয়ে থেকে চুরি করতে এসেছিল। ওই ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।