জিয়াউর রহমান হাজার হাজার গাছ কেটেছেন: ড. হাছান

জিয়াউর রহমান হাজার হাজার গাছ কেটেছেন: ড. হাছান
জিয়াউর রহমান হাজার হাজার গাছ কেটেছেন: ড. হাছান

নিউজ ডেস্ক:    আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা নিষ্কণ্টক করার জন্য শুধু সেনাবাহিনীর কয়েক হাজার অফিসার ও জওয়ানকেই হত্যা করেছেন, তা নয়। ঢাকা শহরের হাজার হাজার গাছও কেটে ফেলেছেন তিনি।

মঙ্গলবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ উপকমিটির উদ্যোগে চার মাসব্যাপী বৃক্ষের চারা রোপণ ও পরিচর্যা কর্মসূচির উদ্বোধনকালে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকতে দেশে একটি অদ্ভুত ধরনের তন্ত্র চালু করেছিলেন। সেটা হচ্ছে কারফিউতন্ত্র।

তিনি বলেন, যাদের বয়স পঞ্চাশের ওপরে তাদের মনে থাকবে, জিয়াউর রহমানের সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম শহরে বছরের পর বছর রাতের বেলা কারফিউ ছিল। জিয়াকে কেউ একজন বলেছিলেন, ‘গাছের ফাঁক থেকে কেউ আপনাকে গুলি করতে পারে।’ এ কারণে ক্ষমতা নিষ্কণ্টক করতে জিয়াউর রহমান ঢাকা শহরের রাস্তার দু’ধারের সব গাছপালা কেটে ফেলেছিলেন। আবার হেফাজতের আন্দোলনের সময় বিএনপি-জামায়াত মিলে ঢাকা শহরের সব গাছ কেটে ফেলেছে। পরিবেশ-প্রকৃতি নিয়ে যারা কাজ করেন, তাদের বেশিরভাগকে এ সময়গুলোতে চুপ থাকতে দেখা গেছে, যেটি অনভিপ্রেত।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সময় দেশে বনভূমির পরিমাণ আট শতাংশে নেমে এসেছিল, আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে গত সাড়ে ১২ বছরে বৃক্ষ আচ্ছাদিত জমির পরিমাণ অনেক বেড়েছে। বনভূমির পরিমাণও ১২ শতাংশে উন্নিত হয়েছে।

পরে তথ্যমন্ত্রী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের রমনা কালীমন্দির সংলগ্ন অংশে ফলজ, বনজ ও ঔষধি বৃক্ষের চারা রোপণ করেন। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং বন ও পরিবেশ উপকমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এবং উপকমিটির সদস্য সচিব দেলোয়ার হোসেন।