ডিপ্লোমা ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের শিক্ষামন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি পেশ

ফলাফল জটিলতা নিরসনে শিক্ষামন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি মানববন্ধন
ফলাফল জটিলতা নিরসনে শিক্ষামন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি মানববন্ধন

নিউজ ডেস্ক: ফলাফল সংক্রান্ত জটিলতা নিয়ে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছেন বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে চার বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রমের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা। গত বৃহস্পতিবার শিক্ষামন্ত্রনালয়ে উপস্থিত হয়ে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর একান্ত সচিব, শিক্ষাসচিব এবং কারিগরি শিক্ষা সচিবের সাথে দেখা করে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।

স্মারক লিপি প্রদানের পূর্বে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতি এবং সহ সভাপতি হিসেবে শিক্ষর্থীদের পক্ষ থেকে দাবি পেশ করেন মোঃ আলিফুর রহমান এবং মোঃ ইছহাক। মানববন্ধনে অংশ নেন বাংলাদেশের সকল পলিটেকনিকের প্রায় ১০০ জন প্রতিনিধি।

তারা জানান, চার বছর মেয়াদী এই ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স ৮টি সেমিস্টারে বিভক্ত। তার মধ্যে ৭ সেমিস্টার ব্যাপি একাডেমিক কার্যক্রম এবং শেষের ১ সেমিস্টার ইন্টার্নি। তারা যথারিতি সপ্তম সেমিস্টার শেষ করে অষ্টম সেমিস্টার তথা ইন্টার্নিও সমাপ্ত করে। এরপর তাদের একাডেমিক রেজাল্ট হয়। এতে অনেকেরই রেফার্ড আসে। এরপর বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক গত ২৪-০১-২০২১ইং তারিখে পরিপূরক পরিক্ষার সময়সূচী প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত সময়সূচী অনুযায়ী পরিক্ষা শুরু হয়েছিল ২২-০২-২০২১ইং তারিখে।

কিন্তু করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ার কারণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরামর্শক্রমে সরকার কর্তৃক ০৫-০৪-২০২১ইং তারিখে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এতে ৩টি ডিপার্টমেন্টের ১টি করে মোট ৩টি পরীক্ষা অবশিষ্ট থেকে যায়। এরপর গত ২৭-০৫-২০২১ইং তারিখে বাকি ৩টি পরিক্ষা নেওয়ার তারিখ প্রকাশ করার ১দিন পর ২৯-০৫-২০২১ইং তারিখে আবারও বোর্ড কর্তৃক পরিক্ষা স্থগিত করা হয়। এরই মধ্যে গত ১৫-০৩-২০২১ইং তারিখে পরিপূরক শিক্ষার্থীদের রেখেই বাকি শিক্ষার্থীদের ফলাফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড।

এরই মধ্যে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের উচ্চ শিক্ষার একমাত্র বিদ্যাপীঠ ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) কর্তৃক ভর্তি পরিক্ষার আবেদনের সর্বশেষ তারিখ ২০জুন ২০২১ইং ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রতি বছর একই সেশনের সকল শিক্ষার্থীর ফলাফল একই সাথে প্রকাশ করা হলেও, এবার এই ব্যতিক্রমি নিয়মের কারণে একই সেশনের কিছু শিক্ষার্থী ভর্তি পরিক্ষায় আবেদন করতে পারছে আবার কিছু শিক্ষার্থী পরিক্ষায় আবেদন করতে পারছে না। অথচ ডুয়েট হলো ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের উচ্চ শিক্ষার একমাত্র প্রতিষ্ঠান।

এ বিষয়ে দফায় দফায় কারিগরি বোর্ডে যোগাযোগ করলে করোনা পরিস্থিতির কারণে এবং বিভিন্ন সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের পরিক্ষা অবশিষ্ট থেকে যাওয়ায় ফলাফল প্রকাশ করতে পারবেনা বলে জানান। তারা ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বরাবরও গতকাল বুধবার আবেদনের তারিখ পেছানোর জন্য স্মারকলিপি জমা দিয়েছেন।

তাদের দাবি সমূহঃ-

১। ২০ জুনের আগে আমাদের রেজাল্ট প্রকাশ করতে হবে।

অথবা,

২। যেকোন ভাবে ডুয়েট ভর্তি পরিক্ষায় শিক্ষার্থীদের বসার সুযোগ দিতে হবে।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থীরা গণমাধ্যমসহ সংশ্লিষ্ট সকরের সার্বিক সহায়তা কামনা করেন।