প্রশাসনের সহযোগিতায় বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল মাহি

প্রশাসনের সহযোগিতায় বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল মাহি
প্রশাসনের সহযোগিতায় বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেল মাহি

মোঃ এরশাদ হোসেন, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি:  ঢাকার কেরানীগঞ্জে পুলিশের হস্ত ক্ষেপে মাহি আক্তার (১৩) নামে এক নাবালিকা মেয়ের বাল্য বিবাহ বন্ধ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে কেরানীগঞ্জের শাক্তা ইউনিয়নের নতুন ভাড়ালিয়া গ্রামে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবু সালাম মিয়া পিপিএম জানান, শুক্রবার (১১ জুন) রাতে ৯৯৯ সেবার মাধ্যমে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় খবর পাই, শাক্তা ইউনিয়নের নতুন ভাড়ালিয়া গ্রামের বাচ্চু মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া সুমন সরদার তার নাবালিকা মেয়ে মাহি আক্তার (১৩) এর সাথে বলসুতা গ্রামের সেন্টু রারির ছেলে রাসেল রারি (১৬) এর বিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এই খবর পেয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন আটি পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক মোঃ দিদার হোসেনকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে মেয়ের বাবা সুমন সরদার, বর পক্ষের পিন্টু (২১) ও শাওন (১৮) কে আটক করি। পরে কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান সোহেলেকে সংবাদটি জানাই। সংবাদ পেয়ে ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসন সোহেল ঘটনাস্থলে পৌছে ঘটনার সত্যতা প্রমান পান। এরপর তিনি ভ্রাম্যমান আদালতে বিচার কাজ চালু করেন।

আদালত মানবিক দিক বিবেচনা করে তাদের সাজার চিন্তা না করে অর্থদন্ড কার্যকর করে ছেড়ে দেয়। এবং ছেলের বয়স ২১ ও মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ে আপাতত বন্ধ ঘোষনা করেন।