কুলিয়ারচরে মাদকাসক্ত নাতি নানিকে খুন

আটোয়ারীতে বজ্রপাতে নিহত মার্জিনার লাশ দাফন সম্পন্ন
আটোয়ারীতে বজ্রপাতে নিহত মার্জিনার লাশ দাফন সম্পন্ন

সোহানুর রহমান (সোহান), ভৈরব প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে মাদকাসক্ত নাতি শাহিন দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে বৃদ্ধা আপন নানি বুদি বেগমকে। এ সময় বুদি বেগমকে বাঁচাতে গিয়ে মাজারের ইমাম ও পল্লী চিকিৎক সহ ২ জন আহত হন।

গত বুধবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামে হযরত মাওলানা আবু আলী আক্তার উদ্দিন শাহ্ কলন্দর গউস পাক (রঃ) মাজার শরীফ এর পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বুদি বেগমের (৬০) গ্রামের বাড়ি উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের আমোদপুর গ্রামে। আর নাতির নাম শাহিন (৩৩) বাড়ী পার্শবর্তী ছয়সূতী ইউনিয়নে।

আহতরা হলেন: ফরিদপুর গ্রামের হযরত মাওলানা আবু আলী আক্তার উদ্দিন শাহ্ কলন্দর গউস পাক (রঃ) মাজার শরীফ এর ইমাম এবং পল্লী ডাক্তার আতাউর রহমান সিদ্দিকী ও অপর জনের নাম আনিছুর রহমান।আহতদের উদ্ধার করে বাজিতপুরের ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মাজারের ইমাম মাওলানা আতাউর রহমান সিদ্দিকী অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে বর্তমানে সে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ।

হযরত মাওলানা আবু আলী আক্তার উদ্দিন শাহ্ কলন্দর গউস পাক (রঃ) মাজার শরীফ এর মোতাওয়াল্লী মো.নজরুল ইসলাম কাজী জানান,নিহত বুদি বেগম একজন ভিক্ষুক সে প্রায়ই এই মাজারে আসতেন মানুষের কাছ থেকে টাকা পয়সা ও খাবার ভিক্ষা করে চেয়ে নিয়ে আবার চলে যেতন। বুদি বেগম ঘটনার দিনও এসেছিলেন। পরে রাত ৮ টার দিকে তিনি মাজারের পশ্চিম পাশে বুদির বেগমের উপর তার আপন নাতি ভবঘুরে মাদকাসক্ত শাহিন হামলা চালায় এবং তাকে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে কোপাতে থাকেন।

এ সময় বুদি বেগমের ডাক-চিৎকার শুনে মাজারে অবস্থানরত পল্লী ডাক্তার ইমাম মওলানা আতাউর রহমান সিদ্দিকী ও আনিসুর রহমান এগিয়ে এসে বুদি বেগমকে রক্ষার চেষ্টা করলে ভবঘুরে মাদকাসক্ত শাহিন তাদেরকেও এলোপাথাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

ঘটনাস্থলেই বুদির মৃত্যু হয়। স্থানীয়রা বলছেন, শাহিন একজন ভবঘুরে মাদকসেবী। মাদকের টাকার জন্য নানির উপর আক্রমণ করে থাকতে পারে। সে এর আগেও তার স্ত্রীকে দা দিয়ে কুপিয়েছে।

এ বিষয়ে, কুলিয়ারচর থানার ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন,খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি একটি পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়ে থাকতে পারে।

গত বৃহস্পতিবার সকালে লাশের ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যাকারি শাহিনের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধিন রয়েছে।