নেপালে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন কে পি শর্মা ওলি

নেপালে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন কে পি শর্মা ওলি
নেপালে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন কে পি শর্মা ওলি

নিউজ ডেস্ক:    রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারী পাঠ করলেন, ‘আমি ঈশ্বর, দেশ এবং জনগনের নামে শপথ করছি…’। নতুন প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি পড়লেন, ‘আমি দেশ এবং জনগনের নামে শপথ করছি…’। নেপালের কমিউনিস্ট পার্টির চেয়ারম্যান ওলি-ই শুধু নন, তাঁর উপপ্রধানমন্ত্রীও শুক্রবার রাষ্ট্রপতির বাসভবন শীতল নিবাসে দুপুর আড়াইটের অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে নতুন করে শপথ নেওয়ার সময়ে ‘ঈশ্বর’ শব্দটি ঊহ্য রাখেন। যদিও উপপ্রধানমন্ত্রীর নিজের নামই ঈশ্বর পোখারেল! বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারীও রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেওয়ার আগে ছিলেন কমিউনিস্ট পার্টির নেত্রী, তাই বিষয়টি নিয়ে উচ্চবাচ্য করেননি তিনি।

সোমবার ওলি আস্থাভোটে পরাজিত হওয়ার পরে বিরোধীদের সরকার গড়ার জন্য বৃহস্পতিবার রাত ন’টা পর্যন্ত সময় দিয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি ভাণ্ডারী। কিন্তু তাঁরা যথেষ্ট সমর্থন জোগাড়ে অসমর্থ হওয়ার পরে একক বৃহত্তম দলের নেতা হিসেবে ওলিকেই ফের সরকার গড়তে ডাকেন রাষ্ট্রপতি। ইতিমধ্যে অবশ্য মদেশীয়দের ‘জনতা সমাজবাদী পার্টি’-র একাংশের ১৫ সদস্যের সমর্থন আদায় করে এবং নিজের দলের বিদ্রোহীদের ঠান্ডা করে পর্যাপ্ত সংখ্যা অর্জন করে ফেলেছেন চতুর রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত ওলি। আর তাঁর এই দুই চালে চুরমার হয়ে গিয়েছে পুষ্পকমল দাহাল ওরফে প্রচণ্ডের মাওবাদী সেন্টারের সমর্থনে নেপালি কংগ্রেস নেতা শেরবাহাদুর দেউবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন।

ক্ষমতায় এসে আগের দফার ২২ জন মন্ত্রী ও তিন জন প্রতিমন্ত্রীকে পুরনো দফতর-সহ বহাল রেখেছেন ওলি। ফের বিদেশমন্ত্রী হলেন প্রদীপ গাওয়ালি, স্বরাষ্ট্রে রামবাহাদুর থাপা। অর্থমন্ত্রী বিষ্ণু পৌড়িয়ালই। এক মাসের মধ্যে সংসদে আস্থাভোটে জয়ী হতে হবে ওলির সরকারকে।