তারুণ্যের মেধা-প্রযুক্তিকে ডিজিটাল করতে হবে : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

তারুণ্যের মেধা-প্রযুক্তিকে ডিজিটাল ইকোনমি করতে হবে : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী
তারুণ্যের মেধা-প্রযুক্তিকে ডিজিটাল ইকোনমি করতে হবে : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তারুণ্যের মেধা এবং প্রযুক্তির শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল ইকোনমি গড়ে তুলতে তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন সরকার দেশে উদ্যোক্তা সংস্কৃতি গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণ, ফান্ডিংসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে।

প্রতিমন্ত্রী শনিবার আইসশ্যালের ‘সুযোগ’ প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে নতুন কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে হোম গ্রোন সলিউশনের উদ্যোগ নেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশের ডিজিটাল ইকোনমি গড়ে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

মেধাসম্পদ হচ্ছে সবচেয়ে বড় সম্পদ উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের ৬৪টি জেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে এসএসসি এবং এইচএসসি পাস শিক্ষার্থীরা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে উদ্যোক্তা হিসেবে নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির সুযোগ পাবে।

আইসিটি বিভাগ সবসময়ই অংশীদারিত্বে বিশ্বাস করে উল্লেখ করে জনাব পলক বলেন, প্রাইভেট -পাবলিক পার্টনারশিপের ভিত্তিতে আমরা নতুন নতুন উদ্যোগকে সফল করতে চাই। তিনি বলেন, সরকার, ইন্ডাস্ট্রি ও একাডেমিয়া এই তিনের সঠিকভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে অনেক বড় বড় উদ্যোগ সফল করা যায় ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে ২০২১ সালে এসে দেশের সাড়ে এগারো কোটি জনগণ ইন্টারনেট সুবিধা পাচ্ছে। এর মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসেও উৎপাদিত পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করতে পারছে। তরুণদের জন্য শ্রম বাজারে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির ক্ষেত্রে আইসশ্যালের ‘সুযোগ’ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করতে চলেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে আইসশ্যালের সিইও অনন্য রায়হান সুযোগ প্ল্যাটফর্মের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিরেক্টর আফতাবুল ইসলাম, ব্যাংক এশিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর আরফান আলী, বিআইডিএস এর সিনিয়র রিসার্চ ফেলো ড. নাজনীন আহমেদ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।