খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল : চিকিৎসক

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল
খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

নিউজ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শারীরিক অবস্থা এখন পর্যন্ত স্থিতিশীল আছে বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন। তিনি বুধবার দুপুরে বলেন, ম্যাডামের শ্বাসকষ্ট ও গলাব্যথা ছিল না, এখনও নেই। পালস্, স্যাচুরেশন ঠিক আছে।

ডাক্তারি ভাষায়, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। বুধবার দুপুর দেড়টা পর্যন্ত খালেদা জিয়ার শরীরের তাপমাত্রাও স্বাভাবিক ছিল। তিনি গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় বাকি যে আটজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাদের অবস্থাও ভালো বলে জানিয়েছেন এ চিকিৎসক।

রোববার রাতে চিকিৎসক টিমের প্রধান ল্যাবএইড কার্ডিয়াক হাসপাতালের মেডিসিন ও বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এফএম সিদ্দিকী বলেছিলেন, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় খালেদা জিয়ার শরীরে জ্বর না এলে আমরা ধরে নেব তিনি শঙ্কামুক্ত। চেয়ারপারসনের ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা বলছেন, সেই কঠিন সময় পার করেছেন জিয়া। তার করোনায় আক্রান্তের ১৪তম দিন ছিল মঙ্গলবার।

জাহিদ হোসেন বলেন, আগামী সপ্তাহে আবারও করোনা পরীক্ষা করার পরিকল্পনা আছে খালেদা জিয়ার। এখন চেয়ারপারসনের মেডিকেল বোর্ড কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানান চিকিৎসকরা।

ডা. জাহিদ বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় তার স্বাস্থ্যের ক্লোজ মনিটরিং অব্যাহত থাকবে। এ মাস পুরোটাই করা হতে পারে। অনেকের তো করোনা নেগেটিভ হতে চার সপ্তাহও লেগে যায়। করোনার গতি-প্রকৃতি কোন দিকে যায়, তার প্রত্যেকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

তিনি বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সার্বক্ষণিকভাবে চিকিৎসার খোঁজখবর রাখছেন। ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) চিকিৎসার ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সহধর্মিণী ডা. জোবাইদা রহমান সার্বক্ষণিক সমন্বয় করছেন। সুস্থতার জন্য খালেদা জিয়া দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন বলেও জানান ডা. জাহিদ।