আটোয়ারীতে বশিলার আঘাতে মায়ের মৃত্যু

কুলিয়ারচরে মাদকাসক্ত নাতি নানিকে খুন
কুলিয়ারচরে মাদকাসক্ত নাতি নানিকে খুন

মো: ইউসুফ আলী, আটোয়ারী পঞ্চগড় প্রতিনিধি পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে বশিলার আঘাতে বৃদ্ধা মায়ের মৃত্যুর ঘটনায় ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার আলোয়াখোয়া ইউনিয়নের বড়সিঙ্গিয়া ঝাকুয়া পাড়া গ্রামে। ঘটনার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানাযায়, বড়সিঙ্গিয়া ঝাকুয়া পাড়া গ্রামের মৃত রমেশ বর্মনের স্ত্রী যাত্রী রাণী (৭৫) তার ছোট ছেলে যতীন বর্মন বাজারু (৩২) বাড়ীতে খাওয়া নিয়ে গত ০২ এপ্রিল সকালে ঝগড়া শুরু হয়।

ঝগড়ার এক পর্যায়ে বাজারু হাতের নাগালে বশিলা নিয়ে তার মায়ের পায়ে আঘাত করে। আঘাত পেয়ে তার মা মাটিতে লুটে পড়ে। তাৎক্ষনিক খবর পেয়ে যতীন বর্মন(বাজারু)র বড় ভাই ভবেশ বর্মন সহ প্রতিবেশীরা যাত্রী রাণী(৭৫) কে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক ভোলা নাথ পালের কাছে নিয়ে যায়। পল্লী চিকিৎসক ভোলা নাথ পাল প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিসার জন্য ঠাকুরগাঁও নেয়ার পরামর্শ দেন। পল্লী চিকিৎসকের পরামর্শ মতে যাত্রী রাণীকে ০৩ এপ্রিল ঠাকুরগাঁওয়ের আমাদের হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসক চিকিসাপত্র দিয়ে হাসপাতালে থাকার পরামর্শ দেন।

পরিবারে আর্থিক অনটনের কারনে হাসপাতালে না থেকে রোগী যাত্রী রাণীকে নিয়ে বাড়ি আসেন । ঠাকুরগাঁওয়ের চিকিৎসকের পরামর্শ ও চিকিৎসা পত্র মতে বাড়িতেই চিকিৎসা চলছিল যাত্রী রাণীর।বশিলা দিয়ে আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ার পর আর কোনদিন যাত্রী রাণী দাড়াতে পারেনি। গত মঙ্গলবার(২০ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টায় নিজ বাড়ীতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এলাকার সচেতন মহল বিষয়টি থানায় জানালে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইজার উদ্দীন অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের নিয়ে যাত্রী রাণীর বাড়িতে হাজির হন।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে যাত্রী রাণীর ছোট ছেলে যতীন বর্মন(বাজারু) মায়ের লাশ রেখে গা ঢাকা দেয়। পুলিশ এলাকাবাসীর বক্তব্য ও মন্তব্য শুনে লাশ ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় মর্গে পাঠিয়েছেন। মৃত যাত্রী রাণীর বড় ছেলে ভবেশ বর্মন বাদী হয়ে রাতেই ছোট ভাই যতীন বর্মন বাজারুকে আসামী করে আটোয়ারী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলা নম্বর-০৭, তারিখ-২১/০৪/২০২১। পুলিশের কৌশলী অভিযানে যাত্রী রাণীর হত্যা মামলার আসামী তারই ছোট ছেলে যতীন বর্মনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। এব্যাপারে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ হত্যা মামলার আসামী যতীন বর্মন(বাজারু)কে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন এবং বলেন ধৃত আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।