বান্দরবানে অক্সিজেন প্লান্ট চালু

বান্দরবানে অক্সিজেন প্লান্ট চালু
বান্দরবানে অক্সিজেন প্লান্ট চালু

নিউজ ডেস্ক:  করোনা রোগীদের জরুরী প্রয়োজনে অক্সিজেন সাপোর্ট দেয়ার জন্য বান্দরবানে চালু হয়েছে অক্সিজেন প্লান্ট।
মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ১০০ শয্যা বিশিষ্ট বান্দরবান সদর হাসপাতাল প্রাঙ্গণে এ প্লান্টের উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, সিভিল সার্জন ডা.অংসুই প্রু মারমা,স্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তর বান্দরবানের নির্বাহী প্রকৌশলী সরকার মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র সৌরভ দাশ শেখরসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, অক্সিজেনের অভাবে এ এলাকার জনগণ আর কষ্ট পাবে না। প্রধানমন্ত্রীর কারণে সারাদেশের চিকিৎসা ক্ষেত্রে উন্নয়নের সাথে সাথে পার্বত্য চট্টগ্রামের চিকিৎসায়ও উন্নয়ন হচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনা রোগীদের মৃত্যুর অন্যতম কারণ প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের অভাব। হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া এসব রোগীর লক্ষণ অনুযায়ী সব ধরনের ওষুধ দেয়া হয়। কিন্তু অনেকের ক্ষেত্রে প্রয়োজন অনুযায়ী হাইফ্লো অক্সিজেন সরবরাহ করা না হলে রোগীর মৃত্যু ঘটে।

এদিকে, বান্দরবানের স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়,স্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে সদর হাসপাতাল প্রাঙ্গণে ৩ কোটি ২৫ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকা ব্যয়ে বসানো এ সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্ট । এ প্লান্ট পাইপের মাধ্যমে পুরো হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহ করা যাবে। করোনা রোগীসহ যেকোন জটিল রোগীকে সার্বক্ষণিক অক্সিজেন সরবরাহ করা যাবে।

সিভিল সার্জন ড. অংসুই প্রু জানিয়েছেন, করোনাতে দরকার হয় অক্সিজেন। ভেন্টিলেটরে যাদের প্রবেশ করানো হয় তারা বেঁচে আসে খুব কম। ভেন্টিলেটরে যাতে প্রবেশ করতে না হয় সেজন্য এ সেন্ট্রাল অক্সিজেন। এ প্লান্টের মাধ্যমে একজন জটিল করোনা রোগীকে পার মিনিটে ৬০ লিটার অক্সিজেন দেওয়া যাবে। সাধারণত ১ হাজার শয্যায় এ ধরনের অক্সিজেন প্লান্ট থাকে অক্সিজেন সেবা দেয়া যাবে।

এদিকে সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বান্দরবানে মোট করোনা রোগী ৯৫২ জন । সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯১১ জন। গেল ২৪ ঘন্টায় কোন করোনা পজেটিভ রোগী নেই। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে ।