প্রতীকী মঙ্গল শোভাযাত্রা করবে কর্তৃপক্ষ

প্রতীকী মঙ্গল শোভাযাত্রা করবে কর্তৃপক্ষ
প্রতীকী মঙ্গল শোভাযাত্রা করবে কর্তৃপক্ষ

নিউজ ডেস্ক:    করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্বশরীরে কোনও মঙ্গল শোভাযাত্রা হবে না। আগামীকাল বুধবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ৯টায় চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে প্রতীকী মঙ্গল শোভাযাত্রা করবে কর্তৃপক্ষ। সেখানে সাধারণ জনগণ উপস্থিত থাকতে পারবেন না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মঙ্গল শোভাযাত্রার দায়িত্বে থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ।  প্রতিবছরের সকাল ৯টায় ওই শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। এমনকি গণমাধ্যমের কাউকেও না। গণমাধ্যমের প্রচারের সুবিধার্থে প্রতীকী শোভাযাত্রার ভিডিও আমরা গণমাধ্যমে পাঠিয়ে দেবো।

গত ২৯ মার্চ সীমিত পরিসরে চারুকলা অনুষদ চত্ত্বরেই ১শ জন নিয়ে একটি মঙ্গল শোভাযাত্রা করার সিদ্ধান্ত জানায় বিশ্ববিদ্যালয়।

গতকালকের জনসংযোগের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তবে প্রতীকী কর্মসূচি হিসেবে চারুকলা অনুষদের শিল্পীদের তৈরি মঙ্গল শোভাযাত্রার বিভিন্ন মুখোশ ও প্রতীক ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রদর্শন ও সম্প্রচারের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে এ বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কোনও ধরনের মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গণজমায়েত করা যাবে না। মহামারি উদ্ভূত পরিস্থিতি উত্তরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সবার সহযোগিতা কামনা করেছে।

মঙ্গল শোভাযাত্রার বিষয়ে অধ্যাপক নিসার হোসেন বলেন, মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ্যমে একটি বার্তা থাকে। সেটি সব সময় মানবতার পক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে, অসাম্প্রদায়িকতার পক্ষে। এ বছরও সীমিত আয়োজন রয়েছে। এ আয়োজনের মধ্যেও করোনা পরিস্থিতির বার্তা রয়েছে।’