মেধাবী নিলয়ের মায়ের ক্যান্সার চিকিৎসায় এগিয়ে আসুন

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী মুখ নিলয়ের মায়ের ক্যান্সার চিকিৎসায় সবাই এগিয়ে আসুন

মোঃ সাইফুল আলম, ঢাকাঃ   “মা” শব্দটি অনেক সহজ একটি শব্দ। সবার কাছে তার মা সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যক্তি। নয় মাস গর্ভে থেকে মায়ের সাথে এমন আত্মীক সম্পর্ক সৃষ্টি হয়, যা কেউ কল্পনাও করতে পারে না।

সন্তানের মুখের বুলি না ফুটলেও মা কিভাবে কিভাবে সব বুঝে ফেলেন।
মা, কিভাবে যেন বুঝে যায় সন্তানের ক্ষুধা লেগেছে।
মা, সন্তানের সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়।
মা, নির্ভরতার প্রতীক।
মা, বিশ্বাসের প্রথম জায়গা।
মা, জীবনের প্রথম ভালোবাসা।
মা, সবচেয়ে আপনজন
মা, প্রথম শিক্ষক।
মা, সবচেয়ে কাছের বন্ধু।

গুনীরা বলেন- “পৃথিবীতে যার কাছে মা আছে, তার চেয়ে ধনী ব্যক্তি আর নেই”।
কিন্তু সন্তানের এই নিরাপদ আশ্রয়ই যখন সমস্যায় পড়ে। তখন কিভাবে তার সন্তান ঠিক থাকতে পারে। ছোটবেলায় সামান্য জ্বর হলেই সারারাত জেগে জেগে জ্বরকে ঘর থেকে দুরে পাঠিয়ে খান্ত হতো যে মা, সেই আজ রোগাক্রান্ত। নিজের সমস্ত টুকু দিলেও যদি তিনি সুস্থ হন তাহলেও আমি খুশি।

রসায়ন বিভাগের ১২তম ব্যাচের নিলয় কর্মকারের মায়ের ব্রেস্ট ক্যান্সার (লেট স্টেজ-২) সাথে জরায়ু টিউমার। লেট স্টেজ-২ হলো ক্যান্সারের স্টেজ ২ এর শেষ ধাপ। আর্থিক দিক থেকে তেমন স্বচ্ছল না হওয়ায় তিনি সবার কাছে সাহায্য চেয়েছেন। অনেক বড় এমাউন্ট লাগবে ৯-১০ লাখের বেশি।

ক্যাম্পাস খোলা থাকলে হয়ত অনেকটাই সাহায্য করা যেত। কিন্তু বিধিবাম ক্যাম্পাস বন্ধ। সবাই জানি বুঝি সমস্যাটা। কিন্তু প্রশ্ন এখন নিলয়ের সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়ের।

আমরা জবিয়ান, চেষ্টা করলে পারব না এমন কিছুই নেই। সবাই চেষ্টা করে দেখি মা, নিরাপদ আশ্রয়কে নিরাপদে রাখা যায় কিনা।

অনেক সময় বিকাশে/রকেটে ছোট এমাউন্ট অনেক দোকানদাররা দিতে চান না। কথায় আছে ইচ্ছা থাকিলে উপায় হয়। তাদেরকে একটু বুঝালেই হয়ত কাজ হতে পারে।

ক্যাম্পাস বন্ধ, অনেক সমস্যা তবুও আমাদের মানবিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে কিভাবে নিলয়কে হেরে যেতে দিতে পারি আমরা জবিয়ানরা!

সাহায্য পাঠানোর জন্যঃ
ব্যাংক একাউন্টঃ 0200016612454 (Agrani bank)
বিকাশঃ 01571742755 – নিলয়
বিকাশঃ 01781619819 – সাব্বির
রকেটঃ 01781619819-6 – সাব্বির
নগদঃ 01829181520

আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সবাই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসি এবং অপরকে সহযোগিতার জন্য বলি।