টিকা নিন জনগণকে বিভ্রান্ত করবেন না: তথ্যমন্ত্রী

নৈরাজ্য সৃষ্টির অপচেষ্টা বৃহত্তর পরিকল্পনার অংশ: ড. হাছান
নৈরাজ্য সৃষ্টির অপচেষ্টা বৃহত্তর পরিকল্পনার অংশ: ড. হাছান

নিউজ ডেস্ক:  বিএনপি নেতৃবৃন্দসহ করোনা টিকার সমালোচকদের গোপনে টিকা গ্রহণ না করে প্রকাশ্যে টিকা নেয়া ও জনগণকে বিভ্রান্ত না করার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্মুদ। নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতাসহ সরকারের সমালোচকরা করোনা শুরুর প্রথম থেকে বলে আসছে বাংলাদেশে কোটি কোটি মানুষ আক্রান্ত হবে আর লাখ লাখ মানুষ মারা যাবে। তারা আরও বলেছিল সরকার করোনা প্রতিষেধক টিকা আনতেই পারবে না। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সম্ভব হয়েছে। টিকা উৎপন্ন হওয়ার আগেই টিকা ক্রয় করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সেই টিকা বাংলাদেশে এসেছে এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে টিকা দেয়া অব্যাহত রয়েছে।

‘কিন্তু দুঃখের বিষয় যারা বলেছিলেন টিকা আনতে পারবে না, সেই বিএনপি নেতারা এবং সামলোচকরা গোপনে টিকা গ্রহণ করছে’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, গোপনে টিকা না নিয়ে প্রকাশ্যে নেয়ার জন্য এবং এ ব্যাপারে জনগণকে বিভ্রান্ত না করতে তাদের প্রতি আহ্বান জানাই।

বিএনপি নেতারা আরো বলেছিল, করোনা পরিস্থিতিতে দেশে হাজার হাজার মানুষ অনাহারে মারা যাবে, কিন্ত সরকারের যথাযথ পদক্ষেপের কারণে গত এক বছরে একজন মানুষও অনাহারে মারা যায়নি, জানান তথ্যমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে ছিল। যার ফলে সরকারের মন্ত্রী, এমপি, উপদেষ্টা ও কয়েক হাজার নেতাকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল, অনেকে মৃত্যুবরণ করেছেন। আমি নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলাম। অথচ যারা রাজপথে সরকারের সমালোচনায় মুখর ছিল, দেশের মানুষের পাশে তারা ছিল না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যাদুকরী নেতৃত্বে অনেক এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ। উন্নয়নের সবগুলো সূচক অর্জিত হওয়ার কারণে বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই স্বল্প উন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। পাকিস্তানের প্রচারমাধ্যমগুলো গুরুত্বের সাথে প্রচার করছে যে, সবগুলো সূচকে পাকিস্তানকে পিছনে ফেলে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে।