কোয়ারেনটাইন পর্ব কাটিয়ে ক্রিকেটে ফিরলেন কোহলিরা

অনুশীলনরত কোহলিরা

নিউজ ডেস্ক: কোভিড টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় স্বস্তির হাওয়া ভারত ও ইংল্যান্ড শিবিরে। মঙ্গলবার অনুশীলনে নামার কথা ছিল দুই দলের ক্রিকেটারদের। কিন্তু বিরাট কোহলিরা আর তর সইতে পারছিলেন না। ছ’দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে থাকতে দম বন্ধ হয়ে আসছিল তাঁদের। তাই সোমবার সন্ধ্যাতেই প্র্যাকটিসে নেমে পড়লেন রোহিত, অশ্বিনরা। কোয়ারেন্টাইন পর্ব কাটিয়ে ক্রিকেটে ফিরে বেশ ফুরফুরে মেজাজে ধরা দিলেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। হবে নাই বা কেন। সেই আইপিএল থেকে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকতে হচ্ছে তাঁদের। তার উপর অস্ট্রেলিয়া সফরেও কম ঝক্কি পোহাতে হয়নি ভারতীয় দলকে। সিডনি টেস্ট থেকে পরিস্থিতি প্রায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছিল। তা সত্ত্বেও রাহানের নেতৃত্বে ডনের দেশে ২-১ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ জিতে ইতিহাস গড়ে টিম ইন্ডিয়া।

অজিদের বিরুদ্ধে দুরন্ত সাফল্য এখন সঞ্জীবনী সুধার কাজ করছে ভারতীয় শিবিরে। তবে টিম হোটেলে পৌঁছানোর আগে রোহিত-রাহানেদের মন ভারাক্রান্ত হয়েছিল ফের কোয়ারেন্টাইন পর্বের ভাবনায়। তাই পরিবারের সদস্যদের পাশে চেয়েছিলেন ক্রিকেটাররা। সেই বার্তা পৌঁছায় বোর্ডের কাছে। সৌরভ গাঙ্গুলি, জয় শাহরা সিদ্ধান্ত নেন, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে তিন ফরম্যাটের সিরিজেই ভারতীয় ক্রিকেটাররা টিম হোটেলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে রাখতে পারবেন। বোর্ডের এই সিদ্ধান্ত হাসি ফুটিয়েছিল ঋদ্ধিমানদের মুখে। দলের অধিকাংশ সদস্যই পরিবারকে সঙ্গে এনেছেন। চেন্নাইয়ে প্রায় ছ’দিন হোটেলের রুমেই বন্দি থাকতে হয় তাঁদের। কিন্তু আইপিএল কিংবা অস্ট্রেলিয়া সফরের মতো দমবন্ধ করা পরিস্থিতির মুখে তাঁদের পড়তে হয়নি। রাহানেকে দেখা গিয়েছে, কন্যার সঙ্গে গানের তালে কোমর দোলাতে। আবার ব্যালকনিতে বসে স্ত্রী রীতিকার সঙ্গে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করেছেন রোহিত। প্রাক্তন ক্রিকেটাররা বলছেন, বোর্ডের এই সিদ্ধান্ত একেবারেই সঠিক। এতে ক্রিকেটাররা অনেক চাপমুক্ত থাকবেন। ফলে সেরা পারফরম্যান্স মেলে ধরতে সুবিধা হবে।

করোনা উত্তর পর্বে দেশের মাটিতে প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ খেলতে নামছে টিম ইন্ডিয়া। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ইংল্যান্ড। রুট বাহিনী সম্প্রতি শ্রীলঙ্কা সফরে ২-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ জিতেছে। সেই দলে ছিলেন না বেন স্টোকস, জোফ্রা আর্চারের মতো তারকা ক্রিকেটার। করোনা আক্রান্ত হয়ে খেলতে পারেননি অভিজ্ঞ স্পিনার মঈন আলিও। কিন্তু ভারতের বিরুদ্ধে তিন জনেই ইংল্যান্ড স্কোয়াডে রয়েছেন।

সিরিজ আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সৌজন্যে। ভারতের অবস্থান কিছুটা মজবুত। কোহলি বাহিনী যদি ইংল্যান্ডকে ২-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজে হারাতে পারে, তাহলে জুনে লর্ডসে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে খেলা নিশ্চিত হয়ে যাবে। ইংল্যান্ডের সামনেও রয়েছে ফাইনালে ওঠার হাতছানি। সেক্ষেত্রে অবশ্য রুট বাহিনীকে জিততে হবে বড় ব্যবধানে। তাই চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ বেশ রোমাঞ্চকর হয়ে উঠতে পারে বলে মত ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের।

ক্রীড়াঙ্গনে দর্শক প্রবেশের ক্ষেত্রে নতুন নির্দেশ জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। বলা হয়েছে, পঞ্চাশ শতাংশ দর্শক গ্যালারিতে থাকতে পারবে। অর্থাৎ ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজে টিকিট বিক্রির ক্ষেত্রে আপাতত কোনও বাধা নেই। কিন্তু বিসিসিআই কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছে না। করোনা আতঙ্ক পুরোপুরি দূর হয়নি। তাই প্রথম টেস্ট হয়তো ফাঁকা গ্যালারির সামনেই হবে। চিপকে দ্বিতীয় টেস্টে দর্শক ফিরছে।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম