গৌরীপুর পৌরসভা নির্বাচনে হামলা-ভাঙচুর

তৃতীয় ধাপে ৬৩ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শনিবার
তৃতীয় ধাপে ৬৩ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শনিবার

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)সংবাদদাতা:  ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম হবির প্রধান নির্বাচনী কেন্দ্রে কাঠের নৌকা ভাংচুর, পোস্টার ছেঁড়া ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপরদিকে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী (আ.লীগ বিদ্রোহী) বর্তমান মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের নারিকেল গাছ প্রতীকের সমর্থক মেহেদি হাসান মিথুন সহ দুই বাড়িতে হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মিথুন গৌরীপুর পৌর যুবলীগের সভাপতি। রোববার দিবাগত রাতে পৌর শহরের পৃথক পৃথক স্থানে এই ঘটনা ঘটে।

এদিকে নারিকেল গাছ প্রতীকের সমর্থকদের বাড়িতে হামলা-ভাংচুরের ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে সোমবার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সৈয়দ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পৌর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে সমর্থকরা।

অপরদিকে নৌকার নির্বাচনী কেন্দ্রে হামলা-অগ্নিসংযোগের ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা সোমবার দুপুরে পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে।

নৌকার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ইকবাল হোসেন জুয়েল বলেন, নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে দলের লোকজন ঐক্যবব্ধ হয়ে কাজ করছে। কিন্তু প্রতিপক্ষ ধানের শীষ ও নারিকেল গাছ প্রার্থী নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করতে নৌকার নির্বাচনী কেন্দ্রে হামলা করে পোস্টার ছেঁড়া ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। বিষয়টি প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বলেন, নারিকেল গাছ প্রতীকের জয় ঠেকাতে আমার কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করা হয়েছে। নৌকার নির্বাচনী কেন্দ্রে হামলার সাথে আমি জড়িত নই। নৌকার লোকজন নিজেরাই হামলা করে আমার ওপর দায় চাপাচ্ছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বোরহান উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ যুবলীগ সভাপতির বাড়ি ও নৌকার নির্বাচনী কেন্দ্র পরিদর্শন করেছে। তবে এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। জড়িতদের ধরতে চেষ্টা চলছে।