প্রণোদনা প্যাকেজের ঋণ বিতরণ সহজ করার প্রস্তাব

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বক্তব্য রাখছেন

নিউজ ডেস্ক: সরকার ঘোষিত প্রণোদনা প্যকেজের ঋণ বিতরণ প্রক্রিয়া আরও সহজ করার প্রস্তাব করেছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)।

শনিবার রাজধানীতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন,প্রণোদনা প্যাকেজের ৫৪ দশমিক ১৩ শতাংশ ইতোমধ্যে বিতরণ হয়েছে। আশা করছি সামনের দিনগুলোতে এটি আরো দ্রুতগতিতে উদ্যোক্তাদের মাঝে বিতরণ করা সম্ভব হবে। তবে এই ঋণ বিতরণ প্রক্রিয়া আরও সহজ করার প্রয়োজন রয়েছে।

২০২১ সালে বছরব্যাপী ডিসিসিআইয়ের যেসব কর্মপরিকল্পনা রয়েছে, তা গণমাধ্যমে তুলে ধরতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

ডিসিসিআই সভাপতি দেশের কুটির ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সহায়তার লক্ষ্যে একটি বিশেষ ব্যাংক অথবা ‘এসএমই বন্ড’ প্রবর্তনের প্রস্তাব করেন। তিনি বলেন, কুটির, অতিক্ষুদ্র ও ক্ষুদ্র শিল্পকে মাঝারী ও বৃহৎ শিল্পের সংজ্ঞায়নে আলাদা করার প্রয়োজন, যার মাধ্যমে কুটির,অতিক্ষুদ্র ও ক্ষুদ্র শিল্পের সার্বিক সহায়তা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

তিনি দেশের এসএমই খাতের উন্নয়নে এসএমই নীতিমালার পরিবর্তে ‘এসএমই ডেভেলপমেন্ট এ্যাক্ট’ প্রবতর্নের প্রস্তাব করেন। যার মাধ্যমে এখাতের প্রতিবন্ধকতা তুলে ধরা সম্ভব হবে বলে তিনি মত দেন।

রিজওয়ান রহমান দেশের শিল্পখাতের চাহিদা মাফিক দক্ষ মানব সম্পদ তৈরির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের পাঠ্যক্রম যুগোপযোগীকরণের সুপারিশন করেন। তিনি বলেন, করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী বৈদেশিক বিনিয়োগ কমেছে প্রায় ৫০ শতাংশ এবং বর্তমানে বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগ পরিস্থিতিও রাতারাতি পরিবর্তন হবে না। এমতাবস্থায় দেশের বিনিয়োগ পরিস্থিতির উন্নয়ন ও কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য প্রদত্ত সুবিধা স্থানীয় উদ্যোক্তাদের দেয়া যেতে পারে। তিনি বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষনের জন্য অর্থনৈতিক কূটনীতি বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, আমাদের উৎপাদিত পণ্যের বেশির ভাগই রপ্তানি হয় আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশসমূহে,যারা করোনা মোকাবেলায় বেশ কঠিন চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে এবং এ পরিস্থিতি আরো দীর্ঘস্থায়ী হলে এ অঞ্চলের দেশসমূহ হতে আমাদের রপ্তানি পণ্যের আদেশ কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই আমাদেরকে এশিয়া অঞ্চলের দেশসমূহের প্রতি আরো বেশি মাত্রায় নজর দিতে হবে।

তিনি ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়াগের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা নিয়ে বিদ্যমান কর্পোরেট করহার কমানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

রিজওয়ান জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষনের জন্য ডিসিসিআইয়ের পক্ষ হতে এবছর এশিয়া অঞ্চলে ‘ডিসিসিআই ইনভেস্টমেন্ট সামিট’ আয়োজনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উত্তরণের পর বাংলাদেশ বিদ্যমান বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা হারাবে এবং এ পরিস্থতি মোকাবেলায় প্রস্তুতি গ্রহণ ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের প্রয়োজন। তিনি মনে করেন বাংলাদেশের পক্ষ হতে প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা প্রদানের সময়সীমা বাড়ানোর দাবি উপস্থাপন করা যেতে পারে।

তিনি বৈশি^ক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সূচক সমূহের অবস্থান উন্নয়নে সরকার ও বেসরকারীখাতকে একত্রে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
ডিসিসিআই উর্ধ্বতন সহ-সভাপতি এন কে এ মবিন,সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন, পরিচালক মো. শাহিদ হোসেন,গোলাম জিলানী, হোসেন এ সিকদার ও নাসিরউদ্দিন এ ফেরদৌস সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র.বাসস