আবার জেঁকে বসেছে শীত

নিউজ ডেস্ক:  টানা এক সপ্তাহ শৈত্যপ্রবাহের পর তিনদিন বিরতি দিয়ে আবার জেঁকে বসেছে শীত। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, পশ্চিমা লঘুচাপ দুর্বল হয়ে পড়ায় শুক্রবার থেকে উত্তরের শীতল হাওয়া সক্রিয় হয়ে পড়েছে। ফলে তাপমাত্রা কমছে।

শুক্রবার থেকে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় শুরু হয়েছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। শনিবার থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ বিস্তার ঘটাতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। তা কয়েকদিন স্থায়ী হতে পারে। এরপরই আবারও পশ্চিমা লঘুচাপের কারণে তাপমাত্রা বেড়ে যাবে। মাঘের মাঝামাঝি পর্যন্ত শীত ওঠানামা করবে। এরপরেই বাতাসে বসন্তের আবহ চলে আসতে পারে।

শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। সকাল ৯টায় সেখানে তাপমাত্রা ৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। সেখানে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইছে। এর আগে গত সোমবার তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। পরদিন মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তেঁতুলিয়ার তাপমাত্রা বেড়ে গিয়ে ১০ ডিগ্রি থেকে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত ওঠানামা করছিল। তবে এই কয়েকদিন ঘন কুয়াশার কারণে রোদের তীব্রতা একেবারেই ছিল না।

শুক্রবার পর্যন্ত তেঁতুলিয়া ছাড়া দেশের আর কোথাও শৈত্যপ্রবাহ নেই। শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ফেনীতে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী তিনদিন সারাদেশে আবহাওয়ার খুব বেশি তারতম্য হবে না।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত সারাদেশের নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়ছে। ঘন কুয়াশার কারণে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ও রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। নয় ঘণ্টা পর শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফেরি চলাচল শুরু হয়।