চ্যানেল আইতে ২২ জানুয়ারি থেকে রাবেয়া খাতুন সপ্তাহ

চ্যানেল আইতে ২২ জানুয়ারি থেকে রাবেয়া খাতুন সপ্তাহ
চ্যানেল আইতে ২২ জানুয়ারি থেকে রাবেয়া খাতুন সপ্তাহ

নিউজ ডেস্ক:   চ্যানেল আইতে ২২ জানুয়ারি

‘হৃদয়ের আয়নায়’ :  বাংলা সাহিত্যের সুলেখিকা, স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদকসহ অসংখ্য জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত মহিয়সী নারী কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুন’র বাছাই করা নাটক নিয়ে ২২ জানুয়ারি থেকে ২৮ জানুয়ারি সপ্তাহব্যাপী চ্যানেল আইতে বিশেষ আয়োজন ‘রিন লিকুইড-হৃদয়ের আয়নায়’ দেখানো হবে। প্রচার হবে প্রতিদিন রাত ৭:৫০ মিনিটে।

এ নাটকটগুলোর মধ্যে রয়েছে- নাটকীয় বাস্তব, প্রিয়ন্তীর জন্য একটু ভালোবাসা, ক্রিস্টালের রাজহাঁস, অমিত্রাক্ষর, আপোষ, মমি এবং সেতু।

২৩ জানুয়ারি
প্রিয়ন্তীর জন্য একটু ভালোবাসা :   প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের লেখা নাটক ‘প্রিয়ন্তীর জন্য একটু ভালোবাসা’ চ্যানেল আইতে দেখানো হবে ২৩ জানুয়ারি রাত ৭.৫০ মিনিটে। এর চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন আবুল হায়াত। এ নাটকে অভিনয় করেছেন তৌকির আহমেদ, এ্যালেন শুভ্র, সুষমা, শাহনাজ সুমী, আবুল হায়াত, শিরিন আলম, সৈয়দ হাসান ইমাম প্রমুখ।

গল্পে দেখা যাবে- বোনের বিয়েতে প্রিয়ন্তীর বোনের দেবর বাহারের (এ্যালেন শুভ্র) সাথে খুব একচোট হয়ে গিয়েছিল প্রিয়ন্তীর (শাহনাজ সুমী)। এরপর পরবর্তীতে বাহার রাগবাগি মিটিয়ে, খুবই কাছে চলে আসে প্রিয়ন্তীর। যেদিন বাহার মনের কথাটি বলতে গেল সেদিনই জানতে পারে অন্য কোথাও প্রিয়ন্তী অনেক আগেই মন দিয়ে বসে আছে। আর সে বড়ই অসম প্রেম। প্রিয়ন্তী যে মানুষটির সাথে অসপ্রেমে জড়িয়ে আছে সেই মানুষটি আবু মূসা (তৌকীর আহমেদ)। দূরে সরে যায় বাহার। সবাই অসম প্রেমের ব্যাপারটা জেনে ফেলে। এর কারণ হিসেবে চরম বিপর্যয় নেমে আসে প্রিয়ন্তীর জীবনে…।

২৪ জানুয়ারি
রাবেয়া খাতুনের নাটক:   ‘ক্রিষ্টালের রাজহাঁস’
প্রখ্যাত সাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের গল্পে নির্মিত নাটক ‘ক্রিষ্টালের রাজহাঁস’ প্রচার হবে ২৪ জানুয়ারি রাত ০৭:৫০ মিনিটে নাটক। মাসুম শাহরিয়ারের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন আবু হায়াত মাহমুদ। এ নাটকে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ, তানজিন তিশা, মুনিরা মিঠু প্রমুখ।

গল্প. রাইমার ছেলেবেলা কেটেছে বিদেশে। কাজেই বালি সহজাত অনুভূতির পাশাপাশি রাইমা যথেষ্ট আধুনিকা একটা মেয়ে। ২৩ বছর বয়সে মুহূর্তের ভালো লাগা থেকেই আদিবকে বিয়ে করেছিল রাইমা। রাইমার ফটোগ্রাফির শখ ছিল। সেই শখ এক সময় ওর প্রফেশন হয়ে দাঁড়ায়। একটা আন্তর্জাতিক জিও জার্নালের জন্য নিয়মিত কাজ করে। গল্পের শুরুতেই আমরা দেখি রাইমা একটা এসাইনমেন্টে ঢাকার একটু বাইরে যায়। আদিব তাকে আনতে যায়। ফেরার পথে ভয়ঙ্কর এক্সিডেন্ট। দুজনকেই হাসপাতালে এডমিট করতে হয়। রাইমা বেঁচে গেলেও আদিব মারা যায়। আর তখনই জানা যায়, রাইমা সন্তান সম্ভবা। অনেকেই রাইমাকে পরামর্শ দেয় সন্তানকে পৃথিবীতে না আনার। তার পুরো জীবন পড়ে আছে সামনে কিন্তু রাইমার শ্বাশুড়ি তার একমাত্র ছেলে রক্ত দেখতে চায়। সেই শ্বাশুড়ি আবার বদলেও যায় এক সময়। রাইমার মধ্যবিত্ত মানসিকতার শ্বাশুড়ি কথায় কথায় ছেলের মৃত্যুর জন্যে রইমাকে দায়ী করে।

ছেলের জন্মের পর রাইমা তার মার কাছে চলে আসে। বাবা মারা গেছে বছর দুই আগে। রাইমার ছেলের বয়স যখন আড়াই বছর রাইমা তখন আবার কাজে মনোযোগ দেয়। টিভি জার্নালিস্ট জিশানের সঙ্গে রাইমার পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব হলেও রাইমার সন্তানের কারণেই যেন এক ধরনের দূরত্ব থাকে। ভালোলাগার কথা জিশান প্রকাশ করতে পারে না। রাইমাও টের পায় জিশানের প্রতি ওর নির্ভরতা। ছোট ছোট ঘটনার অনুসঙ্গে বন্ধুত্ব গভীর হলেও তারা দূরত্ব ঘোচাতে পারে না। এদিকে রাইমার ছেলেটাও জিশানকে খুব পছন্দ করে…।

২৫ জানুয়ারি
রাবেয়া খাতুনের নাটক:  অমিত্রাক্ষর রাবেয়া খাতুনের উপন্যাসের গল্প নিয়ে আবুল হায়াত নির্মাণ করেছেন নাটক ‘অমিত্রাক্ষর’। যা চ্যানেল আইতে প্রচার হবে ২৫ জানুয়ারি রাত ৭.৫০ মিনিটে। অভিনয়ের পাশাপাশি এর নাটকের চিত্রনাট্যও করেছেন আবুল হায়াত। মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেহজাবিন ও সাজ্জাদ।

গল্পে দেখা যাবে- জাফর ও জোলেখার বিয়ে পারিবাকিভাবে ঠিক হয়ে আছে। ওরাও একে অপরনকে গভীরভাবে ভালোবাসে। ওদের বয়সের ১০ বছর পার্থক্যটা মাঝে মধ্যে জটিলতার সৃষ্টি করে? জাফর ভালোবাসার গভীরতায় যতটাই ঘনিষ্ট হতে চায় জোলেখা ততই আড়ষ্ট আচরণ করে। কারণ শরীরে বাড়ন্ত হলেও মানসিকভাবে সে কৈশোরকে পেরোতে পারছিল না তখনো। তার চোখে প্রেম স্বর্গীয় এর ব্যতিক্রম হলো ল্যাম্পটা। এ নিয়েই শুরু হয় দ্বদ্ব…।

২৬ জানুয়ারি
রাবেয়া খাতুনের নাটক আপোস:  কথাসাহিক্যিক রাবেয়া খাতুনের গল্পে নির্মিত ‘আপোষ’ নাটকটি চ্যানেল আইতে দেখানো হবে ২৬ জানুয়ারি রাত ৭.৫০ মিনিটে। নির্মাণ করেছেন প্রবীন অভিনেতা ও নির্মাতা আবুল হায়াত। এ নাটকে অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া, শিল্পী সরকার অপু, তারিক আনাম খান, আবুল হায়াত প্রমুখ।

কাহিনী সংক্ষেপ : ডা. আনিসুজ্জামান ছাপোষা মানুষ। সরকারি চাকরি থেকে অবসর নিয়ে এখন একটা ওষুধের দোকানে পার্টটাইম বসেন। স্ত্রী নিশাত বানুকে নিয়ে চার সন্তানের সংসার। বড় ছেলে বিয়ে করে আলাদা বাস করে। মেজ ছেলে বিয়ে করে বাপের ঘাড়ে বসে খায়। বড় মেয়ে রুম্মার বিয়ে দিয়েছিলেন একমেধাবী ছেলের সাথে সে হঠাৎ করেই বিশাল ব্যবসায়ী এখন। ছোট মেয়ে টুম্পা লেখাপড়া শেষ করে দেশ উদ্ধারে ব্যস্ত। অনেকদিন পর জামাই জামিল এসেছে ঢাকায় শ্বরশুরবাড়িতে টাকা চাইতে। ব্যবসায়ে কি যেন সমস্যা চলছে! টাকা দেওয়ার ক্ষমতা তো আনিস সাহেবের নেই। তাতে মেজাজ খিচড়ে যায় জামিলের। রাত্রে নেশাটেশা করে ছোটবৌকে নিয়ে কেলেঙ্কারি ঘটায়। টুম্পা শুধু প্রতিবাদই করে না, চরম অপমান করে দুলাভাইকে। আনিস সাহেব ছাপোষা মানুষ জীবনে শুধু আপোষ করেই চলেছেন সবকিছুর সাথে। এবারও চুপ রইলেন বরং মেয়েকেই ভৎর্সনা করেন। কিন্তু জামিল অপমান ভুলতে পারল না। এবার অন্য এক পন্থা আবিষ্কার করল অপামনের প্রতিশোধ নিতে।…

২৭ জানুয়ারি
রাবেয়া খাতুনের নাটক সেতু:  কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের গল্পে নাটক ‘সেতু’ নির্মাণ করেছেন অভিনেতা ও নির্মাতা আবুল হায়াত। এ নাটকে অভিনয় করেছেন রওনক হাসান, মুমতাহিনা টয়া, আবুল হায়াত, শিল্পী সরকার অপু, আল মামুন প্রমুখ। নাটকটি প্রচার হবে ২৭ জানুয়ারি রাত ০৭:৫০ মিনিটে।

গল্পে দেখা যাবে- খসরু, খাদেম এবং খালেদা তিন বন্ধু। খালেদা ভালোবাসে খাদেমকে কিন্তু ঘটনাক্রমে বিয়ে হয়ে যায় খসরুর সাথে। বাসর রাতেই বর কনে দুজনেই বেঁকে বসে কিন্তু উভয়পক্ষ জোরাজুরি করে একঘরে ঢুকিয়ে দেয় ওদের। এরপর ঘর করে ওরা বছর খানেক। মিল কখনোই হয়নি। একসময় ত্যাক্ত-বিরক্ত হয়ে খসরু নিরুদ্দেম হয়। কেউ তার খোঁজ না পেয়ে অবশেষে ভুলেই যায় তাকে। দুবছর পর খসরু ফিরে আসে এই আশায় নিশ্চয় খালেদা এতদিনে তার পথ থেকে সরে গেছে। সে এখন মুক্ত। কিন্তু ফিরে এসেই প্রথমেই মুখোমুখি হয় খালেদার…।