কুলাউড়ায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর পরিবারকে প্রচারণায় বাধা ও হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদক :: কুলাউড়ায় পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব শফি আলম ইউনুছের পরিবারের সদস্যদের প্রচারণার সময় বাধা ও লাঞ্ছিতের ঘটনার খবর পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সূত্রমতে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ৩০ মিনিটের সময় কুলাউড়া পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের দিঘীরপার পাশ্ববর্তী ভোটার কুদি মিয়ার বাসায় নারিকেল গাছ প্রতীকের ভোট চাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। শফি আলম ইউনুছের স্ত্রী ও মেয়ে জয়পাশা এলাকার কুদি মিয়ার বাড়িতে প্রবেশ করে ভোট চাইতে যান। এ সময় ইসমাইল, শাওন ও ইশতিয়াক নামের লোকজন দ্রুত ওই বাড়িতে ডুকে তাদেরকে প্রচারণায় বাধা দিয়ে সরে যেতে খারাপ আচরণ শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা সন্ত্রাসী কায়দায় হুমকির মাধ্যমে বলে চলে যাও চলে যাও বলে ধাক্কাধাক্কির পরিবেশ সৃষ্টি করে। নৌকার মার্কার স্লোগান দিয়ে পরিবেশ অশান্তি শুরু করে।

এক পর্যায়ে মেয়রের স্ত্রী তাদের বলেন আমি কেন তুমাদের কথায় চলে যাবো ভোট চাওয়া এটা আমার গণতান্ত্রিক অধিকার। আমি আমার প্রচারণা শেষ করে যাবো। তারপরও তারা পিছু হটেনি।

ঘটনার খবর পেয়ে শফি আলম ইউনুছের শালা মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের সদস্য বদরুল ইসলাম, জামাতা যুবলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মনি, ছেলে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান নূর তাদেরকে উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর স্থানীয়রাও উপস্থিত হয়ে ঘটনা প্রতিরোধ করার প্রস্তুতি নিলে সন্ত্রাসীরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব শফি আলম ইউনুছের ছেলে মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান নূর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নির্বাচনের আগেই যদি এরকম বাধা ও হুমকি ধামকি শুরু করে তাহলে ভোটের দিন বড় ধরনের ঘটনা ঘটাতে পারে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন ও পুলিশ প্রশাসনের সঠিক তদারকি ও আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার দাবি জানাচ্ছি।

স্থানীয় এক ভোটার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমাদের এলাকায় এমন ঘটনার খবর শুনার পর থেকে স্থানীয়রা আতংকের মধ্যে রয়েছেন। দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান।

কুলাউড়া থানার ওসি বিনয় ভূষণ রায় বলেন, সব প্রার্থীরা তাদের ভোট প্রচারণা শান্তিপূর্ণভাবে ঝুঁকিমুক্ত প্রচার প্রচারণা করার লক্ষে পুলিশ প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে।