সোনাহাট স্থলবন্দরের আমদানি-রফতানি বন্ধ

সোনাহাট স্থলবন্দরের আমদানি-রফতানি বন্ধ

নিউজ ডেস্ক:    কুড়িগ্রামের সোনাহাট স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সরকার রকীব আহমেদের উপর হামলার প্রতিবাদে মঙ্গলবার একদিনের জন্য আমদানি-রফতানিসহ সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশন এবং আমদানি ও রফতানিকারক সমিতি যৌথভাবে এই বন্ধের ডাক দিয়েছে।

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সীমান্তে সোনাহাট স্থলবন্দরের উল্টো দিকে ভারতের আসাম রাজ্যের গোলকগঞ্জ স্থলবন্দর অবস্থিত। সোনাহাট স্থলবন্দরের সহকারি পরিচালক (ট্রাফিক) মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, বন্দরে বর্তমানে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

এদিকে সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা জামান এবং আমদানি ও রফতানিকারক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, গত রোববার বিকেলে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

তারা আরও জানান, শিলখুঁড়ি ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে যোগ দেওয়ার জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুকুল চৌধুরীর নেতৃত্বে সরকার রকীব আহমেদসহ ৪ নেতা গাড়িতে যাচ্ছিলেন। তারা ধলডাঙ্গা বাজারে পৌঁছলে রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে পথরোধ করে তাদের উপর শিলখুঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ হোসেনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। হামলায় গুরুতর আহত সরকার রকীব আহমেদকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সরকার রকীব আহমেদ ওই দিন রাতে বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় শিলখুঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ হোসেনসহ ১৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহান সিরাজ বলেন, রোববার রাতে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও উপজেলা ছাত্রলীগ জরুরি সভা করে হামলার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে শিলখুঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ হোসেন, সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক, আব্দুল কাদের তালুকদার ও নুরুল ইসলাম এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ওমর ফারুক-এই ৫ জনকে তাদের পদ থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আতিয়ার রহমান বলেন, হামলার ঘটনায় মো. হানিফ নামের একজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।