ঐতিহাসিক স্থাপনা রক্ষা করতে হবে

বক্তব্য রাখছেন রানা দাশগুপ্ত
বক্তব্য রাখছে রানা দাশ গুপ্ত

নিউজ ডেস্ক: জাল দলিলের মাধ্যমে চট্টগ্রামে ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ি ভাঙ্গার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে চট্টগ্রাম ইতিহাস সংস্কৃতি গবেষণা কেন্দ্র। ঐতিহাসিক এসব স্থাপনা সরকারকে রক্ষার করার তাগিদ দেন তারা।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এসব দাবি জানান কেন্দ্রের চেয়ারম্যান আলীউর রহমান।

এদিন সংগঠনের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যালের প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত।

রানা দাশগুপ্ত বলেন, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের স্মৃতি বিজড়িত রহমতগঞ্জের জমিদার বাড়িটি যতীন্দ্র মোহন সেনগুপ্ত ও নেলী সেনগুপ্তের। এটি অর্পিত সম্পত্তি হওয়া সত্ত্বেও রাষ্ট্র এটি ঠিক মতো রক্ষা করছে না।

বাড়িটিকে জাদুঘর নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন তিনিসহ  সংগঠনের অন্য সদস্যরা।

কবি আবুল মোমেন বলেন, সংবিধানের ২৪ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে ‘বিশেষ শৈল্পিক কিংবা ঐতিহাসিক গুরুত্বসম্পন্ন বা তাৎপর্য মণ্ডিত স্মৃতি নিদর্শন, বস্তু বা বস্তুসমূহকে বিকৃতি, বিনাশ বা অপসারণ হইতে রক্ষা করিবার জন্য রাষ্ট্র ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন। ‘ যতীন্দ্রমোহন সেনগুপ্ত ও নেলী সেনগুপ্তের বাড়িটি সাংস্কৃতিক সম্পদ।

এটির সুরক্ষা নিশ্চিত করার দায়িত্ব রাষ্ট্র ও নাগরিকদের। রাষ্ট্র উদাসীন থাকায় সচেতন নাগরিক হিসেবে জাদুঘর প্রতিষ্ঠার দাবি জানাতে এসেছি।