আল্লামা শফী মৃত্যুর বিচার বিভাগীয় তদন্ত চায় পরিবার

হেফাজত ইসলামের সংবাদ সম্মেলন
হেফাজত ইসলামের সংবাদ সম্মেলন

সুমন দত্ত: আল্লামা শাহ আহমদ শফী ওরফে শফী হুজুরের মৃত্যুর বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছে তার পরিবার। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি হলে এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন মাওলানা ইউসুফ বিন আহমদ শফী আল-মাদানি। মাওলানা ইউসুফ শফী হুজুরের বড় ছেলে। এদিন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের অন্য নেতা কর্মী ও হাটহাজারী মাদ্রাসার ছাত্র শিক্ষকরা।

মাওলানা ইউসুফ বলেন, শতবর্ষী শাহ আহমদ শফী স্বাভাবিকভাবে মৃত্যু বরণ করেননি। তার মৃত্যু অস্বাভাবিক ছিল। মানসিক যন্ত্রণা দিয়ে ও সময়মত চিকিৎসা না দেয়াতে তার মৃত্যু হয়েছে। এ কারণে এই মৃত্যুর বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, জীবনের শেষ মুহূর্তে শফী হুজুরকে প্রয়োজনীয় ওষুধ গ্রহণ করতে দেয়া হয়নি। রুমের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছিল, এসি ফ্যান ভাঙচুর করা হয়েছিল, চিকিৎসায় ব্যাঘাত ঘটানো হয়েছিল, মুখের অক্সিজেন মাস্ক খুলে ফেলা হয়েছিল, হাসপাতালে যেতে বিলম্ব করা হয়েছিল। শফি হুজুরের সামনে তার নাতিকে এনে গলায় ভাঙা কাচ ধরে বলা হয়েছিল, এই বুইড়া পদত্যাগের এই কাগজে স্বাক্ষর কর, তা না হলে তোর নাতিকে হত্যা করব। এভাবে তাকে জবরদস্তিমূলক স্বাক্ষর নিয়ে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়েছিল। এসব করার পরও বলতে হবে আল্লামা শফীর স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে?

হেফাজতের তথাকথিত আমির জুনায়েদ বাবুনগরী আল্লামা শফীর মৃত্যুকে স্বাভাবিক বলেছেন। যা চরম মিথ্যাচার। এ কথার নিন্দা জানান তিনি। আল্লামা শফীর মৃত্যুর আগে হাটাহাজারীতে শিক্ষকদের গলায় গামছা লাগিয়ে টানা হেচরা করা হয়েছে,তাদের রুম ভাঙচুর করা হয়েছে, তাদের অর্থ সম্পদ লুটপাট করা হয়েছে। আর বাবুনগরী গং বলেন সেদিন কিছুই হয়নি।

এই বাবুনগরী গং একটি রাজনৈতিক দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে মাঠে নেমেছে। হেফাজতের নতুন যে কমিটি হয়েছে, তাতে বাবুনগরীর পরিবারের ২২ জন সদস্য রয়েছে। এছাড়া দুটি রাজনৈতিক দলের একটির ৩৬ জন, আরেকটি ২৪ জন সদস্য করে হেফাজত ইসলামের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরা দেশকে অস্থিতিশীল করতে এমন কমিটি তৈরি করেছে। এই কমিটি অবৈধ ও অসাংবিধানিক।

তিনি বলেন, আল্লামা শফির মৃত্যু স্বাভাবিক হয়েছে এই দাবির পক্ষে বাবুনগরী গং আমার একটি ভিডিও প্রচার করেন। এই ভিডিও আমার কাছ থেকে জোরপূর্বক নেওয়া হয়েছে। এটা ষড়যন্ত্রমূলক। আমাকে ভয় দেখিয়ে এসব করা হয়েছিল। যা আমি কয়েকবার বলেছি।

সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের বাঁচাতে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করতে বাবুনগরী গং এসব করে যাচ্ছে। তাই আল্লামা শফীর মৃত্যুর বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাই আমরা।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম