বোলারদের দাপটে জয়ের স্বপ্ন দেখছে ভারত

নিউজ ডেস্ক: প্রথম ইনিংসের মত বক্সিং-ডে টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসেও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দাপট দেখালো ভারতের বোলাররা। ফলে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে জয়ের স্বপ্ন দেখছে ভারত।

দ্বিতীয় ইনিংসে ১৩৩ রানে অস্ট্রেলিয়ার ৬ উইকেট তুলে নিয়েছে ভারতের বোলাররা। এতে ৪ উইকেট হাতে নিয়ে মাত্র ২ রানে এগিয়ে অসিরা। প্রথম ইনিংসে ৩২৬ রান করে ভারত। ফলে প্রথম ইনিংসে ১৩১ রানের লিড পায় টিম ইন্ডিয়া। প্রথম ইনিংসে ১৯৫ রানে অলআউট হয়েছিলো অসিরা।

ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানের অপরাজিত ১০৪ ও রবীন্দ্র জাদেজার অপরাজিত ৪০ রানের সুবাদে দ্বিতীয় দিন শেষে ৫ উইকেটে ২৭৭ রান করেছিলো ভারত। এতে ৫ উইকেট হাতে নিয়ে ৮২ রানে এগিয়েছিলো টিম ইন্ডিয়া।

তৃতীয় দিন নিজের ইনিংসকে বড় করতে পারেননি রাহানে। ১১২ রানে রান আউট হন তিনি। তার ২২৩ বলের ইনিংসে ১২টি চার ছিলো। ষষ্ঠ উইকেটে জাদেজার সাথে ১২১ রান যোগ করেছেন রাহানে। এই জুটির কল্যাণেই প্রথম ইনিংসে বড় লিড নিতে পারে ভারত।

অধিনায়ককে হারালেও, টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৫তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ ঠিকই পেয়েছেন জাদেজা। জাদেজাকে ৫৭ রানে তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার পথের কাটা তুলেন পেসার মিচেল স্টার্ক।

২৯৪ রানে রাহানে ও ৩০৬ রানে জাদেজার আউটের পর বেশি দূর যেতে পারেনি ভারত। ৩২৬ রানেই গুটিয়ে যায় তারা। শেষদিকে রবীচন্দ্রন অশ্বিন ১৪ ও উমেশ যাদব ৯ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার স্টার্ক-লিঁও ৩টি-কামিন্স ২টি ও হ্যাজেলউড ১টি উইকেট নেন।

চা-বিরতির আগে শেষ হয় ভারতের ইনিংস। এরপর ব্যাট হাতে নেমে চতুর্থ ওভারেই ধাক্কা খায় অস্ট্রেলিয়া। ওপেনার জো বার্নসকে ৪ রানের বেশি করতে দেননি ভারতের পেসার উমেশ যাদব।

শুরুতেই সতীর্থকে হারানোর ধাক্কা সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন আরেক ওপেনার ম্যাথু ওয়েড ও মার্নাস লাবুশেন। ভালোই এগোচ্ছিলেন তারা। তবে ১৮তম ওভারে তাদের পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়ান ভারতের স্পিনার অশ্বিন। স্লিপে রাহানেকে ক্যাচ দিয়ে ২৮ রানে বিদায় নেন লাবুশেন।

লাবুশেনের বিদায়ে উইকেটে আসেন দলের সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ। সিরিজে এখনো নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি তিনি। প্রথম টেস্টে ১ ও অপরাজিত ১ রান করেন স্মিথ। এই টেস্টের প্রথম ইনিংসে স্মিথকে রানের খাতাই খুলতে দেননি অশ্বিন।
তাই এবার বেশ সর্তক ছিলেন স্মিথ। কিন্তু রক্ষনাত্মক থাকাটাই, তার কাল হয়েছে। ৩৩তম ওভারের দ্বিতীয় বলে স্মিথকে বিদায় দেন ভারতের পেসার বুমরাহ। ৩০ বলে ৮ রান করা স্মিথের উইকেট উপড়ে ফেলেন বুমরাহ। তাই এবারও ব্যর্থতাকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়েন স্মিথ।

দলীয় ৭১ রানে স্মিথের আউটের পর দলকে খেলায় ফেরানোর চেষ্টা করেন ওয়েড ও ট্রাভিড হেড। ধীরে ধীরে বড় জুটি গড়ার পথে ছিলেন তারা। কিন্তু দলীয় ৯৮ রানে ওয়েড-হেডকে থামান জাদেজা। দলীয় ৯৮ থেকে ৯৯ রানের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার ৩ উইকেট তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষকে লড়াই থেকে ছিটকে দেন জাদেজা ও অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা মোহাম্মদ সিরাজ।

ওয়েডকে ৪০ ও অধিনায়ক টিম পাইনকে ১ রানে শিকার করেন জাদেজা। আর ১৭ রান করা হেড শিকার হন সিরাজের।
৯৮ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ইনিংস হার নিয়ে চিন্তায় পড়ে যায়। কারন তখন ৪ উইকেট হাতে নিয়ে ইনিংস হার এড়াতে ৩৩ রান দরকার পড়ে অস্ট্রেলিয়ার। ঐ অবস্থায় দিনের ১৮ ওভারের মত বাকী ছিলো।

শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার চিন্তা ভাজ দূর করেন ক্যামেরন গ্রিন ও প্যাট কামিন্স। দিনের বাকী সময়ে আর কোন বিপদ হতে দেননি তারা। জুটিতে অবিচ্ছিন্ন ৩৪ রান যোগ করে দলকে লিড এনে দেন গ্রিন ও কামিন্স। অবশ্য অশ্বিনের বলে ভারতের উইকেটরক্ষক ঋসভ পান্থের কাছে জীবন পান কামিন্স।

দিন শেষে গ্রিন ১৭ ও কামিন্স ১৫ রানে অপরাজিত আছেন। ভারতের জাদেজা ২টি, বুমরাহ-উমেশ-সিরাজ-অশ্বিন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (টস – অস্ট্রেলিয়া) :
অস্ট্রেলিয়া : ১৯৫ ও ১৩৩/৬, ৬৬ ওভার (ওয়েড ৪০, লাবুশেন ২৮, জাদেজা ২/২৫)।
ভারত প্রথম ইনিংস : ৩২৬/১০, ১১১.১ ওভার (রাহানে ১১২, জাদেজা ৫৭, লিঁও ৩/৭২)।