দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে পারলে চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হবে

দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে পারলে চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হবে

নিউজ ডেস্ক:   শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, বিজয়ের ৪৯ বছর পার হয়ে গেলেও আজও আমরা দুর্নীতিমুক্ত হতে পারিনি। উন্নয়নের জোয়ারে বাংলাদেশ ভাসলেও দুর্নীতির ছোবলে তা ম্লান হয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে আমাদেরকে অভিশাপ দিতেন। তিনি যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন আজ দুঃস্বপ্নে পরিণত হয়েছে। শুধু বুকে পিঠে বঙ্গবন্ধুর ছবি লাগিয়ে গলা ফাটিয়ে বক্তব্য দিলে চলবে না। তাঁর আদর্শকে হৃদয়ে ধারণ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামা, গণচীন সফর বইগুলো পড়ে তা অনুসরণ করে তিনি কখনো দুর্নীতিবাজ হতে পারে না। কিন্তু আমরা সব উল্টোটাই করছি।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ ও লালন করলেও তাঁর পাশে থাকা অনেকেই সেই আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়েছে। আর এ কারণেই সম্রাট-পাপিয়া-সাহেদ-সাবরিনাদের সৃষ্টি হচ্ছে। হাইব্রিড ব্যক্তিরাই সামনে এসে তৃণমূল নেতৃবৃন্দকে পিছনে ফেলে দিচ্ছে। রাজনীতি এখন দুর্নীতিবাজ ও কালো ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে। এখান থেকে জাতিকে বাঁচাতে পারলে চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হবে।

শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ শুক্রবার বিকালে সেগুনবাগিচাস্থ কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচা মিলনায়তনে “জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে” উদ্বোধকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের উপদেষ্টা সাংবাদিক ফরিদ খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মঞ্জুরুল হক সিকদার, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা মোঃ গোলাম ফারুক। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগঠনের মহাসচিব আর কে রিপন ও অগ্রগামী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা গোলাম ফারুক মজনু।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা প্রখ্যাত সাংবাদিক এস এম বারীর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য সাংবাদিক মোঃ আবদুস ছোবাহান, ইউপি চেয়ারম্যান মোছাঃ সুলতানা আখতার, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, মোঃ শারাফত উল্যা, হুমায়ুন কবির মজুমদার, শ্রী রবীন্দ্রনাথ কর্মকার, মোঃ আনোয়ার হোসেন (হালিম), মোঃ মোক্তার হোসেন, মোঃ রেজওয়ানুল ইসলাম শাহ, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ মোঃ কামাল পাশা, প্রধান শিক্ষক মোঃ এমদাদ হোসেন কে শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক স্মৃতি পদক প্রদান করা হয়।