কুশিয়ারা সেতু সুনামগঞ্জবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার: পরিকল্পনামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:   পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, আগামী বছরের বিজয় দিবসে আমরা আশা করছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন। একই দিনে আমরা চাচ্ছি কুশিয়ারা সেতুর উদ্বোধন হবে। সুনামগঞ্জবাসীর স্বপ্নের কুশিয়ারা সেতুর উদ্বোধন হবে পদ্মা সেতুর সঙ্গে, সেইভাবেই কাজ এগিয়ে নেবার জন্য নির্দেশনা দিয়েছি আমরা।

শুক্রবার বিকেলে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জে সিলেট বিভাগের সর্ববৃহৎ কুশিয়ারা নদীর ওপর নির্মিতব্য সেতুর কাজ পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, কুশিয়ারা সেতু মুজিব শতবর্ষে সুনামগঞ্জবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার। এই সেতু রাজধানীর সঙ্গে সুনামগঞ্জের ৫৫ কিলোমিটার দূরত্ব কমিয়ে দেবে। সুনামগঞ্জে প্রবেশের দুয়ারে হওয়া এই সেতু বদলে দেবে সুনামগঞ্জকে।

পরে মন্ত্রী রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

জনসভায় পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে এক অভূতপূর্ব উন্নয়ন হচ্ছে। বিশ্বে বাংলাদেশ এখন উন্নত জাতি হিসেবে মর্যাদা পাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাজের বঞ্চিত মানুষের কল্যাণে কাজ করছেন। গ্রামে গ্রামে বিদ্যুতের আলো পৌঁছে গেছে। ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য গুচ্ছ গ্রাম করে দিয়েছেন। কোন মানুষ শেখ হাসিনার শাসনামলে গৃহহীন থাকবে না। এসব প্রকল্পে কোন অনিয়ম মেনে নেওয়া হবে না।

এসময় তিনি দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রাখার আহ্বান জানান।

রানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে সভায় সভাপতিত্ব করেন রানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুন্দর আলী। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছদরুল ইসলামের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন- যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, জেলা পরিষদ সদস্য মাহাতাবুল হাসান সবুজ, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

দুপুরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের গুঙ্গিয়ারগাঁও গ্রামে গুচ্ছ গ্রামের অগ্রগতি পরিদর্শন করে উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তিনি সিলেট বিভাগের দীর্ঘ সেতু কুশিয়ারা নদীর ওপর ৭০২ মিটার দৈর্ঘ্য রানীগঞ্জ সেতুর কাজ পরিদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি আরো দু’টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।

মন্ত্রী উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শনকালে সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।