শিল্পপতি হাসেম বনানীতে চিরনিদ্রায়

শিল্পপতি এম এ হাসেম

নিউজ ডেস্ক:   পারটেক্স গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক সংসদ সদস্য ও বিশিষ্ট শিল্পপতি এম এ হাসেমকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

শুক্রবার বাদ জুমা গুলশানের আজাদ মসজিদে তার জানাজায় পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও নানা শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন। পরে দাফনের সময় মরহুমের ছেলেসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। তবে করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করায় সীমিতসংখ্যক মানুষকে কবরস্থানে প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত বুধবার রাতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এম এ হাসেম। কভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর গত ১১ ডিসেম্বর তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

১৯৪৩ সালে ৩০ আগস্ট নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন এম এ হাসেম। তিনি ১৯৬২ সালে তামাকপণ্য কেনাবেচার মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করেন। সত্তরের দশকে তিনি চট্টগ্রামে গড়ে তোলেন মেসার্স হাসেম করপোরেশন। পরে পারটেপ গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন। এ গ্রুপে উৎপাদন ও সেবা খাতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ফার্নিচার, বোর্ড, খাদ্য ও পানীয়, প্লাস্টিক, কাগজ, তুলা, সুতা, পাট, বস্ত্রমিল, গার্মেন্টস, আবাসন, শিপিং, এগ্রো, এরোমেরিন লজিস্টিকস প্রতিষ্ঠা করেন।

এসব ব্যবসার পাশাপাশি বেসরকারি খাতের সিটি ও ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতাদেরও একজন ছিলেন হাসেম। ব্যাংক দুটির চেয়ারম্যান পদেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এ ছাড়া জনতা ইনস্যুরেন্স কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতাদেরও একজন তিনি। নোয়াখালীতে তিনি নিজের নামে স্কুল ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছেন।

তিনি নোয়াখালীর এম এ হাসেম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রতিষ্ঠাতা এবং নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।