ওসি প্রদীপের পরিকল্পিত হত্যার শিকার মেজর সিনহা

নিউজ ডেস্ক: চাঞ্চল্যকর সিনহা রাশেদ খান হত্যা মামলায় অভিযোগ পত্র দিয়েছে র‍্যাব। রবিবার র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে তদন্তকারী সংস্থা র‍্যাব।

ইয়াবা ব্যবসায় টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ সরাসরি জড়িত। এই খবর হত্যাকাণ্ডের শিকার সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা মেজর সিনহা জেনে যাওয়ার কারণে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে ওসি প্রদীপ। এতে সহায়তা করে তার মদদপুষ্টরা।

সিনহা হত্যাকাণ্ড একটি পরিকল্পিত হত্যা কান্ড। এমন কথাই বিস্তারিত ভাবে অভিযোগ পত্রে লিখেছে র‍্যাব।

র‍্যাবের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, টেকনাফে ওসি প্রদীপ অবৈধ কর্মকাণ্ডের রাজ্য তৈরি করেছিলেন। মাদক ব্যবসা থেকে তার প্রতিদিনের আয় ছিল অর্ধ কোটি।

কক্সবাজার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ পত্র দাখিল করা হয়েছে। র‍্যাবের তদন্ত কর্মকর্তা জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম এ কাজটি সম্পন্ন করেন।

এদিকে আসামীরা সিনহার বোনের মামলা বাতিলের আবেদন করেছিল। আদালত আসামীদের সেই মামলা খারিজ করে দিয়েছে।

এছাড়া র‍্যাবের অভিযোগ পত্রে পুলিশের করা সিনহা রাশেদ খান, সাহেদুল ইসলাম সিফাত, শিপ্রা দেবনাথের বিরুদ্ধে মাদক রাখার মামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ থেকে দায়মুক্তি চেয়ে চূড়ান্ত প্রতিবদেন দাখিল করা হয়।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম