রাজশাহীতে ডোপ টেস্টে ৪ পুলিশ সদস্য মাদকাসক্ত শনাক্ত

নিউজ ডেস্ক:    ডোপ টেস্টে রাজশাহী জেলা পুলিশের চারজন কনস্টেবল মাদকাসক্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সন্দেহভাজন আরও ৮ জনের ডোপ টেস্টের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন জানান, গত সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে ৭ জনের ডোপ টেস্ট করে চার কনস্টেবল মাদকাসক্ত হিসেবে চিহ্নিত হয়। পরে বিভাগীয় মামলা করে বরখাস্ত করা হয় তাদের। গত রোববার জেলা পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের আরও ৮ পুলিশ সদস্যের ডোপ টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। আগামী দুয়েকদিনের মধ্যে তাদের টেস্টের ফলাফল পাওয়া যাবে। কারো শরীরে মাদকের আলামত পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সাম্প্রতিক সময়ে পুলিশের মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) নির্দেশ মতে, গত সেপ্টেম্বরে রাজশাহী জেলা পুলিশে সন্দেহভাজন মাদকাসক্ত পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট শুরু হয়। রাজশাহী পুলিশ হাসপাতালের একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের নেতৃত্বে ডোপ টেস্ট কমিটি করা হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞ কমিটি প্রথমে ফলাফল ঢাকায় পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠিয়ে থাকে। সেখান থেকে সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশকে ফলাফল জানানো হচ্ছে।

এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন জানান, গণহারে পরীক্ষা করা হচ্ছে না। যাদের সন্দেহজনক মনে হচ্ছে তাদেরই পরীক্ষা করানো হচ্ছে। এদের মুখ, চোখ ও ঠোঁট দেখে মাদকাসক্ত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

সূত্রগুলো বলছে, রাজশাহী সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় পুলিশের অনেকের কাছে মাদক সহজলভ্য। তাই কেউ কেউ মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছেন। এই সংখ্যাটা একেবারে কম নয়। আবার অনেকেই মাদকের কারবারেও জড়িয়ে পড়েছেন।

জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম জানান, মাদকাসক্তদের পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না। তবে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।