উপজেলা পরিষদের সঙ্গে সমন্বয় করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে নতুন রাস্তা ও সেতু নির্মাণ করুন :এলজিআরডি  মন্ত্রী

 

নিউজ ডেস্ক: স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, উপজেলা পরিষদের সঙ্গে সমন্নয় করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নতুন রাস্তা, সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ করতে হবে। তিনি বলেন, গ্রামাঞ্চলে নতুন পাকা রাস্তা, সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ করতে হলে নিজ নিজ উপজেলা পরিষদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটিতে আলোচনার মাধ্যমে যোগ্যতা প্রমাণ করে কার্যবিবরণীতে অর্ন্তভূক্ত করতে হবে। তাজুল আরো বলেন, দেশের ভূ-প্রকৃতি রক্ষার জন্য গ্রামাঞ্চলে যেখানে-সেখানে রাস্তা, সেতু ও কালভার্ট নির্মাণের ক্ষেত্রে এ ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে ।

তাজুল ইসলাম ১৬ আগষ্ট মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলন কক্ষে গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তিস্তা নদীর ওপর পিসি গার্ডার সেতু এবং চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার ডাকাতিয়া নদীর ওপর নির্মিত সেতুর ডিজাইন সংক্রান্ত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন।
সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মেজবাহ উদ্দিন, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রোকন উদ-দৌলা, এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মো. আব্দুর রশিদ খান, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক সহ সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা পরিষদের জনপ্রতিনিধি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে এই কমিটি গঠন করা যেতে পারে উল্লেখ করে তাজুল ইসলাম বলেন, এই কমিটি যাচাই-বাছাই করে যে প্রতিবেদন দেবে তা বিবেচনায় নিয়ে নতুন রাস্তা ও সেতু নির্মাণের অনুমতি দেয়া হবে। এতে যেখানে সেখানে রাস্তা-ঘাট ও সেতু নির্মাণ বন্ধ হবে।
প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন, সেতু নির্মাণের ক্ষেত্রে নদীর নাব্যতা, পানি প্রবাহ ঠিক রাখা, নৌ চলাচল, কৃষি সেচ ও মৎস্য এবং পরিবেশের বিষয়টি নিশ্চিত করা এবং যেখানে-সেখানে ব্রিজ নির্মাণ না করতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীকে প্রধান এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও বিআইডব্লিউটিএসহ সংশ্লিষ্টদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।
এছাড়াও তাজুল ইসলাম তিস্তা নদীর ওপর নির্মিতব্য পিসি গার্ডার সেতু এবং ডাকাতিয়া নদীর ওপর নির্মিতব্য সেতু নদীর নাব্যতা, পানি প্রবাহ ও নৌ চলাচল বিষয় ঠিক আছে কিনা তা পুন:বিবেচনা করে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে এই কমিটিকে নির্দেশ দেন।