অনুপস্থিতিতে বিচার নিয়ে খালেদার আবেদন খারিজ

নিউজ ডেস্ক:   জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচারিক কার্যক্রম চলা নিয়ে ‘লিভ টু আপিল’ খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ।
প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে সাত বিচারপতির আপিল বিভাগ বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেয়।
দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জানান, এ আদেশের ফলে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচারে বাঁধা নেই।

আদালতে খালেদার পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন। দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

উল্লেখ্য, রাজধানীর বকশীবাজার কারা অধিদপ্তরের মাঠে নির্মিত অস্থায়ী আদালত ভবনে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচারকাজ চলছিল। নিরাপত্তার কারণ উল্লেখ করে ৪ সেপ্টেম্বর ওই মামলার বিচার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পুরাতন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রশাসনিক ভবনের ৭ নম্বর কক্ষকে অস্থায়ী আদালত হিসেবে ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।

এ মামলায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৫ বিচারক মো. আখতারুজ্জামান ২০ সেপ্টেম্বর এক আদেশে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে মামলাটির বিচার কার্যক্রম চলবে বলে আদেশে দেন। এর বিরুদ্ধে গত ২৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে রিভিশন আবেদনটি করেন খালেদা জিয়া। শুনানি শেষে ১৪ অক্টোবর রিভিশন আবেদন খারিজ করে আদেশ দেয় হাইকোর্ট। এর বিরুদ্ধে আপিলে যায় খালেদা জিয়া।

এর মধ্যে বিচারিক আদালত এ মামলার রায়ের জন্য আজ ২৯ অক্টোবর দিন ঠিক করেছেন।