হজ চলাকালীন রিয়াদ-ঢাকা-রিয়াদ রুটের সকল ফ্লাইট বাতিল

নিউজ  ডেস্ক: আসন্ন হজ ফ্লাইটকে কেন্দ্র করে আগামী ১৪ জুলাই থেকে ১ আগস্ট এবং ২৭ আগস্ট থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রিয়াদ-ঢাকা-রিয়াদ রুটে বিমান বাংলাদেশে এয়ারলাইন্সের সকল ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

তবে এই সময়ে যারা রিয়াদ থেকে ঢাকা অথবা ঢাকা থেকে রিয়াদ ভ্রমণের জন্য অগ্রিম টিকেট কনফার্ম করেছেন তারা দাম্মাম ট্রানজিট করে নির্ধারিত তারিখে ভ্রমণ করতে পারবেন। এসময় রিয়াদ থেকে দাম্মাম যাতায়াত এবং খাবার বিমানের পক্ষ থেকে সরবরাহ করা হবে। অথবা কেউ টিকেট রিফান্ড করতে চাইলে কোন ধরনের ফি ছাড়াই তা করা যাবে।

সোমবার সকালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জিএম (পাবলিক রিলেশন) শাকিল মেরাজ টেলিফোনে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বিষয়টি জানিয়ে বলেন, আমরা রিয়াদের ফ্লাইট চালু রাখার জন্য কয়েকটি বিমান ভাড়া করেছিলাম। তবে সৌদি সিভিল এভিয়েশনের অনুমতি না পাওয়ায় ভাড়া করা বিমান দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছেনা।

এদিকে বিমানের ফ্লাইট বাতিলের খবরে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন বিমানের টিকেট কনফার্ম করা যাত্রীরা। তারা বলছেন, রিয়াদ থেকে দাম্মাম ৪০০কিলোমিটার দুরত্ব বাসে যেয়ে সেখান থেকে আবার ৬ ঘন্টার বিমান জার্নি অনেক কষ্টসাধ্য এবং সময় সাপেক্ষ ব্যাপার।

বিমানের এই সিদ্ধান্তের ফলে আসছে ঈদ মৌসুমে প্রবাসীদের দেশে ফেরার বাড়তি বিড়ম্বনা যুক্ত হবে। সময় এবং শারীরিক শ্রম এড়াতে বিমান বিমুখ হবেন প্রবাসীরা। এতে করে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে পারে রাষ্ট্রীয় এই বিমান সংস্থাটি।

বর্তমানে যেখানে বিমান রিয়াদ ঢাকা রিয়াদ রুটে সপ্তাহে ৬টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে সেখানে সপ্তাহে অন্তত ২/৩টি ফ্লাইট পরিচালনা করার দাবি প্রবাসীদের। বর্তমানে গড়ে প্রতিদিন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে রিয়াদ ঢাকা রিয়াদ রুটে ৪শ থেকে ৫শ যাত্রী ভ্রমণ করে থাকেন।