প্লাস্টিক নিষেধাজ্ঞায় চাকরিচ্যুত আশঙ্কায় ৩ লাখ

নিউজ ডেস্ক: শনিবার থেকে ভারতের মহারাষ্ট্রে প্লাস্টিক ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হওয়ার পর ইতিমধ্যে চাকরি হারানোর আশঙ্কায় আছেন প্রায় তিন লাখ মানুষ। খবর টাইমস অফ ইন্ডিয়ার।

খবরে বলা হয়, ইতোমধ্যেই প্লাস্টিক এবং থার্মোকল নিষিদ্ধ করেছে দেবেন্দ্র ফরনবিশ সরকার। এই সিদ্ধান্তের ফলে ১৫ হাজার কোটি টাকা পর্যন্ত ক্ষতি হবে বলে মত শিল্প মহলের। একইসঙ্গে প্রায় ৩ লক্ষ মানুষ কাজ হারাবেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে তারা।

প্লাস্টিক ব্যাগ উৎপাদকদের সংগঠন পিবিএমএআই-এর সাধারণ সম্পাদক নিমিত পুনামিতি এ সম্পর্কে রবিবার সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, মহারাষ্ট্র সরকারের এই সিদ্ধান্ত সারা দেশের প্লাস্টিক শিল্পকে বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছে। গোটা শিল্পক্ষেত্রে ইতোমধ্যেই ভাটার টান দেখা দিয়েছে। এই লোকসানের অঙ্ক ১৫ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে। সরকারের প্লাস্টিক নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তে রাতারাতি প্রায় ৩ লক্ষ মানুষ কর্মহীন হয়ে গেলেন।

মহারাষ্ট্রে প্লাস্টিক এবং থার্মোকল নিষিদ্ধ হওয়ায় তাদের সংগঠনের প্রায় আড়াই হাজার সদস্য কারখানা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে বলেও জানিয়েছেন নিমিত পুনামিতি।

উল্লেখ্য, এই প্রথম ভারতের কোন বড় রাজ্যে আইন করে প্লাস্টিক নিষিদ্ধ করা হয়েছে।এখন থেকে মহারাষ্ট্রে কাউকে নিষিদ্ধ প্লাস্টিক বহন করতে দেখলে তার জন্য মোটা অঙ্কের জরিমানা ধার্য করেছে সরকার।

আইন অনুসারে, প্রথমবারের জন্য ৫ হাজার আর দ্বিতীয়বারের জন্য ১০ হাজার টাকা। তারপরেও একই ব্যক্তি যদি প্লাস্টিক ব্যবহার করে ধরা পড়েন, তাহলে তিনমাসের জেল।