ঘুমের সহায়ক যেসব খাবার

নিউজ ডেস্ক : শরীরের ক্লান্তি এবং অবসাদ দূর করার জন্য নিয়মিত পর্যাপ্ত ঘুম দরকার। অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে অনেকের মধ্যে খিটখিটে ভাব,মনোসংযোগের অভাব,মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়,ওজনও বাড়ে। কারও কারও মধ্যে বিষন্নতাও দেখা দেয়। এমন অনেক খাবার আছে যেগুলো ভালো ঘুম হতে সাহায্য করে। এই ধরনের খাবার নিয়মিত খাদ্য তালিকায় রাখলে তা ভালো ঘুমের সহায়ক হবে।

গরম দুধ : আয়ুর্বেদ চিকিৎসা অনুযাযী , এক গ্লাস গরম দুধ ভালো ঘুমের জন্য দারুন উপকারী। দুধে ট্রিপ্টোফ্যান নামক এক ধরনের এমিনো এসিড থাকে যা রূপান্তরিত হয় সেরোটোনিনে। এই সেরোটোনিন মস্তিষ্কে আরামদায়ক অনুভূতির সৃষ্টি করে যা ঘুমের জন্য সহায়ক। আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় আরও বলা হয়, যদি দুধের সাথে সামান্য এক চিমটি জায়ফল গুঁড়া,এলাচের গুঁড়া এবং গুঁড়া করা কাজু বাদাম মিশিয়ে নেওয়া হয় তাহলে শুধু দুধেরই স্বাদ বাড়ে না,এগুলি ভালো ঘুমেও সাহায্য করে।

চেরী ফল : চেরীতে মেলাটোনিন নামে এক ধরনের উপাদান থাকে। এটি মস্তিষ্কের পিনিয়াল গ্রন্থি থেকে তৈরি হয়। এটি ঘুমানো ও জেগে থাকার বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করে। বিশেষজ্ঞদের মতে, চেরী মানসিক ক্লান্তি এবং চাপ কমাতে সাহায্য করে। দিনে ১০ থেকে ১২ টি চেরী খেলে ঘুম ভালো হয়।

কাঠ বাদাম বা আমন্ড : মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির সাথে সাথে আমন্ড গাঢ় ঘুমেও সাহায্য করে। দুধের মতোই এতে থাকে ট্রিপ্টোফ্যান যা মস্তিষ্কে এবং স্নায়ুতে আরামদায়ক অনুভূতি এনে দেয়। অন্যদিকে এতে থাকা ম্যাগনেসিয়াম হৃদস্পন্দন ঠিক রাখে।

ডার্ক চকোলেট : এতে সেরোটোনিন থাকায় এটি মস্তিষ্ক এবং মনকে শান্ত করে। সেই সঙ্গে ভালো ঘুম হতে সাহায্য করে।

কলা : কলাতে থাকা ম্যাগনেসিয়াম এবং পটাশিয়াম পেশী আর স্নায়ুকে সহজ হতে সাহায্য করে। এছাড়াও এতে থাকা কার্বোহাইড্রেট ঘুমে সাহায্য করে।

ওটস : ওটস খেলে কেবল পেটই ভরে না,এটি ওজন হ্রাস করতেও সাহায্য করে। সেই সঙ্গে এটি ঘুমের সহায়ক হিসেবে কাজ করে।

সূত্র : এনডিটিভি