কোটা বাতিলের ঘোষণায় রাবিতে আনন্দ মিছিল

রাবি প্রতিনিধি: সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি বাতিলের বিষয়ে সংসদে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বলে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে সন্তুষ্ঠি প্রকাশ করেন এবং কোটা পদ্ধতি বাতিলের বিষয়টি প্রজ্ঞাপন আকারে জারি না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত রাখারও ঘোষণা দেন তারা।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে শিক্ষার্থীরা আনন্দ মিছিল বের করেন। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে সমাবেশ করে।

সমাবেশে ‘কোটা সংস্কার আন্দোলন’র বিশ্ববিদ্যালয়ের আহ্বায়ক মাসুদ মোন্নাফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে আমরা ধন্যবাদ জানাই। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণাটি অবিলম্বে প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করার দাবি জানাচ্ছি। প্রজ্ঞাপন জারি হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করছি। এর মধ্যে আমরা আন্দোলনে নামব না। যদি কেউ আবার আন্দোলন শুরু করে তাহলে আহŸায়ক কমিটি এর দায়ভার নিবে না।’

এর আগে, বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ কোটা বাতিলের সিদ্ধান্তে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে ক্যাম্পাসে আনন্দ মিছিল করে। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আমতলা চত্বরে দলীয় টেন্ট থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে সমাবেশ করে।

সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘বাংলাদেশের জন্য যা কিছু কল্যাণকর তার সবই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করে যাচ্ছেন। তিনি দেশের মানুষের প্রয়োজন বুঝেন তা পূরণে সবসময় সচেষ্ঠ থাকেন। কোটা বাতিলে সিদ্ধান্ত নেয়ায় ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি বলেন, ‘কোটা সংস্কার আন্দোলনের গতিপথ পরিবর্তন করে দেশের পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি ষড়যন্ত্র করেছে। আন্দোলনকে নস্যাৎ করার জন্য এ অপশক্তি সরকার বিরোধী আন্দোলনে নেয়ার চেষ্টা করেছে।’