বিমান পরিবহন আরও যাত্রী-বান্ধব করার তাগিদ এফবিসিসিআই’র

নিউজ ডেস্ক : দেশের বেসামরিক বিমান পরিবহন ব্যবস্থাপনা আরও নিয়মতান্ত্রিক ও যাত্রী-বান্ধব করার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। দেশীয় যাত্রীদের পাশাপাশি প্রতিবছর যে বিপুল পরিমাণ পর্যটক ব্যবসায়িক প্রয়োজনে এবং ভ্রমণের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশে আসছে তাদের উন্নততর সেবা প্রদান করা দরকার বলে এফবিসিসিআই মনে করে। প্রতিযোগিতামূলক বিমান পরিবহন খাতে যাত্রী আকর্ষণে উন্নত বিমান সেবা এবং বিমানবন্দরের দক্ষতা বাড়ানোরও বিকল্প নেই।

এফবিসিসিআই স্ট্যান্ডিং কমিটি রিলেটিং টু মিনিস্ট্রি অব সিভিল এভিয়েশন এন্ড ট্যুরিজম (সিভিল এভিয়েশন)-এর এক সভায় রবিবার এসব বিষয় উঠে আসে। কমিটির ডাইরেক্টর ইন-চার্জ শমী কায়সার এফবিসিসিআই সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় দেশের বেসামরিক বিমান পরিবহণ ব্যবস্থাপনা, সম্ভাবনাময় পর্যটন খাতের সদ্ব্যবহার এবং দেশের বিমানবন্দর সেবার মূল সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সেসব সমাধানে এ কমিটির পক্ষ থেকে কাজ করার পরিকল্পনা জানান।

কমিটির চেয়ারম্যান তৌফিক উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি মো. মুনতাকিম আশরাফ। কমিটির সদস্যবৃন্দ ছাড়াও এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক নিজামুদ্দিন রাজেশ এবং দেশের বিভিন্ন বিমান পরিবহণ সংস্থার প্রতিনিধিরাও সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে প্রতিবছর ব্যবসা এবং ভ্রমণের উদ্দেশ্যে আসা পর্যটকের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। কিন্তু শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ দেশের বিমানবন্দরগুলোর সেবা কাঙ্ক্ষিত পর্যায়ে উন্নীত হচ্ছে না। দেশের ইমেজ বৃদ্ধি এবং আরও পর্যটক আকর্ষণে বিমানবন্দরগুলোর দক্ষতা ও সেবার মান বাড়ানোর দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ জরুরি। শুধু বেড়ানোর উদ্দেশ্যে নয়, বাংলাদেশ টেক্সটাইল ট্যুরিজম, ফ্যাশন ট্যুরিজম, মিডিয়া ট্যুরিজম, ভিলেজ ট্যুরিজম ইত্যাদির এক উল্লেখযোগ্য গন্তব্য হতে পারে। এক্ষেত্রে তাই সরকারকে সুচিন্তিত পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে, যেখানে বেসরকারি খাতও যথাযথ অবদান রাখবে। সভায় সম্প্রতি কাঠমান্ডুতে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনায় মর্মান্তিক হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করা হয়।