টিকার নামে শরীরে ডিস্ট্রিল ওয়াটার প্রয়োগ আটক ২

 

নিউজ ডেস্ক : সেনবাগে হেপাটাইটিস-এ ভ্যাকসিন প্রয়োগের নামে প্রতারণার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে আটক করে এলাকাবাসী। পরে তাদের পুলিশে দেয়া হয়েছে। শনিবার বিকালে উপজেলার আহম্মদপুর গ্রামের সানমুন কিন্ডার গার্টেনে এ ঘটনা ঘটে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- বরিশালের বাকেরগঞ্জের হাওলাদার বাড়ির মৃত. আবদুস সালামের ছেলে নাঈম হাওলাদার শুভ (২২) ও সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের কঞ্জুরীর হাট পাচিল গ্রামের মণ্ডল বাড়ির রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে সফিকুল ইসলাম (৩৬)।

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, তিন ব্যক্তি আহম্মদপুর গ্রামের মতি মিয়ারহাট বাজারের কাছে সানমুন কিন্ডার গার্টেনে গিয়ে শিশুদের হেপাটাইটিস-এ ভ্যাকসিন দেয়ার জন্য শিক্ষক ও অভিভাবকদের উদ্বুদ্ধ করেন। পরে সেখানে একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়। তাদের বক্তব্য উপস্থিত শিক্ষক ও অভিভাবকদের সন্দেহ হলে তারা এ বিষয়ে চ্যালেঞ্জ করেন। এক পর্যায়ে একজন সুকৌশলে পালিয়ে যায়। এ সময় উপস্থিত অভিভাবকরা দুই শিশি (ভায়াল) নকল ভ্যাকসিনসহ দুজনকে আটক করে পুলিশে সোপার্দ করে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নাঈন হাওলাদার ও সফিকুল ইসলামসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র ফ্যামিলি অ্যান্ড কমিউনিটি এমপাওয়ারমেন্ট সাপোর্ট (ফেসেস) প্রতিষ্ঠানের নামে কয়েকদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন কিন্ডার গার্টেনে গিয়ে শিশুদের হেপাটাইটিস-এ ভ্যাকসিন দেয়ার নামে শরীরে ডিস্ট্রিল ওয়াটার (পানি) প্রয়োগ করে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ ওঠেছে।

সেনবাগের কানকিরহাট মানবকল্যাণ কিন্ডার গার্টেনের প্রতিষ্ঠাতা আনোয়ার ফারুক জানায়, বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) তার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেয়ার জন্য শিশুদের ৩০০ বয়স্কদের ৪০০ ও রক্ত পরীক্ষার নামে ১০০ টাকা করে আদায় করে। এসময় ভ্যাকসিন কোন দেশের তৈরি সেটি উল্লেখ না থাকায় তাদের সন্দেহ হয়।

এরপর তারা ভ্যাকসিন দেয়া বন্ধ করে দিয়ে শতাধিক শিশি (ভায়াল) ভ্যাকসিন আটক করে নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসে মান পরীক্ষার জন্য জমা দেন। কিন্ত তারা আবারো শনিবার অনুরূপ ভাবে ভ্যাকসিন দেয়ার জন্য সহজ-সরল অভিভাবকদের উদ্বুদ্ধ করতে গেলে তাদের আটক করা হয়।

সেনবাগ উপজেলা কিন্ডার গার্টেন সমিতির সেক্রেটারি জাকের হোসেন জানান, ওই প্রতারক চক্র কয়েকদিনে ৪/৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

ওই এলাকার একটি ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি জানান, বাংলাদেশে শুধু মাত্র দুই কোম্পানি ওই ভ্যাকসিন তৈরি করে থাকে। এর প্রয়োগ বিধি হচ্ছে দুই ডোজে। আটককৃতরা যে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করছে তার ৪ ডোজে। সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুন অর রশিদ চৌধুরী জানান, ওই দুই হেপাটাইটিস ভ্যাকসিনের প্রচারণা চালানো সময় এলাকাবাসী তাদের আটক করে।