উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে সমবায়ের বৈপ্লবিক ভূমিকা রয়েছে: প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জন করেছে। এ অর্জনে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের লাখ লাখ সমবায়ী ও সমবায় প্রতিষ্ঠানের সামষ্টিক কর্মপ্রয়াস নীরব বৈপ্লবিক ভূমিকা রেখেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্জিত এ সাফল্যগাঁথাকে এগিয়ে নিতে সমবায়ীদের সর্বোচ্চ মেধা, মনন, শ্রম, একতা ও সততার সদ্ব্যবহার করতে হবে।

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ আজ রাজধানীর আইইবি মিলনায়তনে বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় ফেডারেশনের ৩৩তম বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত

ড. আখতার হামিদ খান পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় উন্নয়ন পদক এবং সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি এর সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন বিআরডিবি মহাপরিচালক মুহম্মদ মউদুদউর রশীদ সফদার ও সংগঠনের সহ-সভাপতি খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধোত্তর বাংলাদেশ পুনর্গঠনে সমবায় খাতকে কাজে লাগিয়ে সফল হন। তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পল্লীর অবহেলিত জনগোষ্ঠীকে দক্ষ মানবসম্পদে রূপান্তর ও জীবন মানোন্নয়নে একটি বাড়ি একটি খামার, পল্লী জনপদ ও সার্বিক গ্রামোন্নয়ন প্রকল্পসমূহ সফলভাবে বাস্তবায়ন করছেন। তিনি পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের কার্যকাল ৫ বছরে উন্নীতকরণ, উপজেলা উন্নয়ন কমিটিতে সদস্য অন্তর্ভুক্তিকরণ, মূলধন বৃদ্ধি, সদস্য, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পেশাগত সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নে সহায়তার ঘোষণা দেন।

পরে প্রতিমন্ত্রী দেশের পল্লী ও সমবায় উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় সফল সমবায়ীদের মাঝে ড. আখতার হামিদ খান সম্মাননা পদক তুলে দেন।