গত তিন বছের বড় ধরনের লঞ্চ ডুবি হয়নি: নৌমন্ত্রী

ঢাকা প্রতিনিধি: নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, নৌযান শ্রমিকদের প্রশিক্ষণের জন্য ঢাকা সদরঘাটে স্বল্প পরিসরে সচেতনামূলক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি বলেন, নৌযান শ্রমিক, মালিক ও যাত্রীদের সচেতনতার ফলে লঞ্চ দুর্ঘটনা কমে এসেছে। গত তিন বছরে বড় ধরনের কোন লঞ্চ ডুবি হয়নি।

তিনি অাজ ঢাকায় সদরঘাটস্থ টার্মিনাল ভবন প্রাঙ্গণে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক লীগের সভাপতি শেখ মোঃ ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌচলাচল ( যাত্রী পরিবহন) সংস্থার সভাপতি মাহবুবউদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম, শ্রমিক নেতা আলাউদ্দিন মিয়া, মোঃ সাহাবুদ্দিন, মোঃ কামালউদ্দিন আহমেদ, নৌযান শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওয়ায়েজুল ইসলাম বুলবুল।

শাজাহান খান বলেন, স্বাধীনতার মাস মার্চ মাসের ৭, ১৭ ও ২৬ তারিখ বাঙালি জাতির জন্য অানন্দের। আর ২৫ মার্চ আমাদের জন্য দুঃখের। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ২৪ কিলোমিটার নৌপথ ছিল। বিগত সরকারগুলোর অযত্ন ও অবহেলার কারণে নৌপথগুলো হারিয়ে এখন তা দাড়িয়েছিল মাত্র ৩,৬০০ কিলোমিটারে। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে ১৪০০ কিলোমিটার নৌপথ খনন করা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে সাড়ে ১১হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৩টি নৌপথ খনন করা হচ্ছে, আরো ১৭৮টি নৌপথ খননের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, নৌপথ খননের জন্য ১৪টি ড্রেজার সংগ্রহ করা হয়েছে, আরো ২০টি ড্রেজার সংগ্রহ করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে দেশের উন্নয়ন হয়েছে, আমরা স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছি। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে অাগামীতে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে নৌকায় ভোট দেযার আহবান জানান।