শুধু এইটুকু রাখিস খেয়াল

নূরানী জান্নাত নুপুর

আমার বক্ষ জমিন সরোবরের নিঃসরিত ভালোবাসার অমিয় ধারা সে তো বয়ে যায়,
তোমার প্রেম প্লাবনের মোহনায় মিশবে বলে।

তপ্ত মরুর ধূধূ বালুকা সম মন পৃথিবী শীতলতায় পূর্ণ হয় সে তো,
তোমার নিঃস্বার্থ মমতায় ঘেরা কাঁধটা যখন,
মাথা রাখার জন্য দাও বাড়িয়ে।

ক্লান্ত এই হিয়ার বিষন্ন ধরার স্বপ্নরাশি সজ্জীবিত হয় সে তো,
তোমার প্রেমাস্পর্শের সুধা পানে।
তমসার ভয়ংকরতায় নিঃসঙ্গ যখন এই আমি,
তুমি তো সপ্নাদিত্য হয়ে উদিলে এক আকাশ রোদের ঝিলিক নিয়ে।

তোমার মঙ্গল কামনায় ভাবনার বুননে সাজাই নিত্য সুখ স্বপ্নের নকশী কাঁথা,
আমার স্পন্দনের মাতাল রক্ত কনিকায় স্বর্নাক্ষরে থাকবে তোমার নামটি বাঁধা।

ভালোবাসার মতো সর্বনাশা মোহনায় নিজেকে করেছি অর্ন্তদাহন,
তবু এ কিসের শংঙ্কা বেজে ওঠে মন মন্দিরের ঘন্টাধ্বন্বিতে!
নিঃস্ব হতে পাই না তো ভয়,
শুধু হারাতে চাই না তোর দেয়া অবহেলার কালগর্ভে,
শুধু এইটুকু রাখিস খেয়াল।