খাবার নষ্ট হওয়া ঠেকাতে চান?

নিউজ ডেস্ক: অনেকেই আছেন, বাইরে খেতে গিয়ে, বিশেষ করে বুফেতে খেতে প্লেট ভরে খাবার নেন। কিন্তু একটু খেয়ে আর খেতে পারেন না। এতে নষ্ট হয় প্লেটের এসব খাবার। খাবার নষ্ট করা ঠেকানোর বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে একটি গবেষণা হয়েছে।

এতে দেখা গেছে, খাবার নষ্ট হওয়া ঠেকাতে বাড়িতে খাওয়ার অভ্যাস করাই ভালো। গবেষণার ফল ‘পিএলওএস ওয়ান’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে।

খাবার নষ্ট হওয়া রোধে এ ধরনের গবেষণা এটাই ছিল প্রথম। গবেষকেরা দেখেছেন, বাইরে খাবারের তুলনায় বাড়িতে খেলে খাবার নষ্ট হওয়ার পরিমাণ কমে।

প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের খাবারের ধরন পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, একই ব্যক্তি বাড়িতে খাওয়ার সময় নিজে বেছে খান। এতে প্লেটে গড়ে ৩ শতাংশ খাবার নষ্ট হয়। কিন্তু যখন কোনো ফরমাশ করা খাবার লাঞ্চ বক্সে আনা হয়, তখন কমপক্ষে ৪০ শতাংশ খাবার নষ্ট করেন। বাড়িতে এক বসায় একবার খাওয়ার পর দ্বিতীয় ও তৃতীয়বার যখন খাবার নেন, তখন খাবার নষ্টের পরিমাণ বেড়ে যায় সাড়ে ৩ শতাংশ পর্যন্ত।

ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষক ব্রায়ান রো বলেন, ‘খাবার যাতে নষ্ট না হয় এবং প্লেটে আমরা কী রেখে দিই, সেটা জানার বিষয়টি আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল। গবেষণায় দেখা গেছে, বাড়িতে খাবারের দিকে মনোযোগ দেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। খাবার নষ্ট করার চেয়ে তা কাজে লাগানো ভালো।’

গবেষক রো বলেন, গবেষণায় প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের খাদ্যাভ্যাস দেখে বোঝা গেছে, তাঁরা যখন নিজে পছন্দ করে খান, তখন প্লেটে কম খাবার নষ্ট করেন।

লুইজিয়ানার পেনিংটন বায়োমেডিক্যাল রিসার্চ সেন্টারের গবেষক করবি মার্টিন বলেন, খুব বেশি খাবার নেওয়া বা কাউকে বেশি খাবার প্লেটে দেওয়ার নেতিবাচক প্রভাব দেখা যায়। যখন কেউ বেশি খাবার নিয়ে ফেলে, তখন প্লেটে অনেক খাবার নষ্ট করতে দেখা যায়।

পিটিআইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, রো ও তার সহকর্মীরা মিলে খাবার নষ্টের বিষয়টি ধরতে একটি স্মার্টফোন অ্যাপ তৈরি করেছেন। ফুড ইমেজ নামের ওই অ্যাপ নিয়ে শিগগিরই পরীক্ষা চালাবেন তাঁরা।