পিতা মাতার খেদমতের পাশাপাশি সকল মানবের জন্য খেদমত করতে হবে: এহসান

রাউজান প্রতিনিধি: শ্রীলংকা থেকে আগত আলহাজ্ব আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ এহসান ইকবাল ক্বাদেরী (ম,জি,আ) বলেছেন আল্লাহর সৃষ্টিকুলের সব কিছুর মুলে হচ্ছেন হযরত মুহাম্মদ মুস্তাফা (দ.)। তিনি বিশ্ব মানবতার মুক্তির দিশারী ও শান্তির দুত। আল্লাহরই প্রেরীত লাখো নবীর মধ্যে তিনিই ছিলেন সর্ব প্রথম ও সর্বশেষ নবী (দঃ)।

তার আগমনে এই পৃথিবী হয়েছে আলোকিত। অবসান হয়েছে অন্ধকার যুগের। তিনি জগতজুড়ে বর্তমান মুসলিম বিশ্বে বিরাজমান অশান্তি ও হানাহানীর কথা উল্লেখ করে বলেন আল্লাহর তরফ থেকে প্রেরীত কোরআন ও রাসুলে পাক (দ.) এর হাদীসের মর্মবাণীতে দেওয়া নির্দেশনা না মানার কারনে সারা বিশ্বে মুসলিমদের মধ্যে অশান্তি বিরাজ করছে। তিনি আরো বলেন আহলে বায়তের প্রেম ভালবাসা নবী অলিগনের প্রদর্শিত ইসলামের শাশ্বত দর্শন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের আদর্শিক পথ থেকে বিচ্যুতি হওয়ায় সারা বিশ্বে অশান্তি হানাহানি লেগে রয়েছে।

তিনি বলেন সকলকে পিতা মাতার খেদমতের পাশাপাশি সকল মানবের জন্য খেদমত করতে হবে। তিনি ১৯ জানুয়ারী শুক্রবার রাত ১০টায় চট্টগ্রামের রাউজান উত্তর সর্তা লস্কর উজির বাড়ী আলামিয়া-নুরুল ইসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) ও ফাতেহায়ে এয়াজদাহুম উপলক্ষে আর্ন্তজাতিক বিশাল আশেকানে রাসুল (দ.) কনফারেন্সের ২য় দিনে প্রধান অতিথির তকরির করছিলেন।

মাইজভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীণ সৈয়্যদ হোসাইন রাইফ নুরুল ইসলাম রোভাব (ম,জি,আ) সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক এম বেলাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে উদ্বোধক ছিলেন বিশিষ্ট ইসলামী গভেষক চট্টগ্রাম সরকারি কলেজের অধ্যাপক ডক্টর ন,ক,ম আকবর হোসেন। শুভেচ্চা বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান বিশিষ্ঠ টিভি সাংবাদিক নুর মোহাম্মদ রানা। বক্তব্য রাখেন নেপাল পার্লামেন্টের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মুহাম্মদ নজির মিয়া। তকরিন করেন সাজ্জাদানশীন আলহাজ্ব আল্লামা সৈয়্যদ শহীদুল আলম শাহ্ আল হাদী,আল্লামা গাজী মঈনুদ্দিন রেজভী,আলহাজ্ব আল্লামা সরোয়ারুল আলম আল ক্বাদেরী,মওলানা বেলাল উদ্দিন আল ক্বাদেরী। এতে বক্তব্য রাখেন বিশিস্ট কলামিষ্ট এস এম আকাশ,মুক্তিযুদ্ধা জহুরুল ইসলাম ছিদ্দিকী,রাজনীতিবীদ আলহাজ্ব মাহবুবুল আলম,মুহাম্মদ মুছা,মুহাম্মদ আলী,আলহাজ্ব মওলানা মুহাম্মদ আলী ছিদ্দিকী প্রমুখ।

এতে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা এস এম বাবর,সৈয়দ হোসেন মিয়া,আলহাজ্ব আবু আহমদ সওদাগর,আল্লামা ওবায়দুন্নাছের নঈমী, আলহাজ্ব নুরুল হুদা মেম্বার, ইউনুচ চৌধুরী, আল্লামা জসীম উদ্দিন আবেদী,অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী,মাস্টার মুহাম্মদ আলাউদ্দিন, যুবলীগ নেতা মুহাম্মদ মুনছুর আলম, আল্লামা শামসুল আলম নঈমী, আলহাজ্ব আহমদ হোসেন, যুবসেনা নেতা মুহাম্মদ আলমগীর, প্যানেনসুলার অডিট ম্যানেজার নুরুল হায়দার, জামাল উদ্দিন মাস্টার, ইলিয়াছ রেজা সোহেল,শওকত হোসেন সুমন, আল্লামা আহমদ হোসেন রেজভী, আল্লামা মুনছুর আলম নেজামী, আল্লামা হারুনুর রশীদ ক্বাদেরী, আল্লামা বাহাউদ্দিন ওমর,আল্লামা সৈয়্যদ গিয়াস উদ্দিন, আলহাজ্ব মওলানা শহীদুল্লাহ, মেম্বার নাসির উদ্দিন সিকদার,ছাত্রনেতা মুহাম্মদ মোসাররফ হোসেন, মুছা মাহমুদ, মোহাম্মদ সারজান, জমির উদ্দিন সানী, মুহাম্মদ সাদ্দাম হোসেন। পরে মিলাদ ক্বিয়াম ও দেশ ও জাতির সম্মৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। এর আগের দিন ১৮ জানুয়ারী মাদ্রাসা ছাত্রদের মাধ্যমে নাত ও ক্বেরাত প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।