জিয়া ধানের শীষের শ্লোগান দিয়ে শ্বশুর বাড়ী গেলেন

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলায় জিয়া স্টোরের মালিক ও পৌরসভা যুবদলের যুগ্ম অাহবায়ক কারানির্যাতিত যুবদল নেতা খন্দকার মোঃ সালাহ উদ্দিন জিয়া। তার ডাক নাম জিয়া।

ভেদরগঞ্জ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডে তার বাড়ী। তার পিতার নাম আলী আকবর খন্দকার। তিনি বিয়ে করেছেন, ভেদরগঞ্জ পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সমাজ সেবক হাসান খানের মেয়ে আখিকে। গত ২৯/৯/২০১৭ ইং কাবিন ও আংটি পরানো হয়। অার গত ৪/১২/২০১৭ ইং দিন তারিখের জন্য তার আত্মীয়-স্বজন নিয়ে গিয়েছিলেন, তার শ্বশুর বাড়ীতে। অার শ্বশুর বাড়ীতে ভ্যান ভরে নানান ধরনের ফল পাঠিয়ে ব্যাপক অালোচনায় এসে ছিলেন তিনি।

কেননা ফলের পরিমাণ ছিল চোখে পরার মতো। তাই স্থানীয়রা বলাবলি করছিলেন, জিয়ার ফল যাচ্ছে শ্বশুর বাড়ী। কারণ সাধারণত এতো ফল গ্রাম অঞ্চলের খুব কম মানুষেই শ্বশুর বাড়ীতে পাঠিয়ে থাকেন। কিন্ত এবার ২ জানুয়ারী ২০১৮ ইং নাশকতামূলক মামলা মাথায় নিয়ে বৌউ অানতে জিয়া ধানের শীষের শ্লোগান দিয়ে শ্বশুর বাড়ী গেলেন।

তাই এবারও তিনি ব্যাপক অালোচনায়। এ ব্যাপারে জিয়া বলেন, অামি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সহ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে শ্রদ্ধা করি। তাই ধানের শীষের প্রতি অামার এতো ভালোবাসা। অার এ কারনেই ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা নাশকতামূলক মামলা মাথায় নিয়ে ধানের শীষের শ্লোগান দিয়ে ফুল ও ছবি দিয়ে গাড়ী সাজিয়ে শ্বশুর বাড়ী গেলাম। এছাড়াও যে ভাগ্যবান মানুষটি আমার বাড়ীতে আসবে।

তার সম্মানে তার পিতা-মাতার বাড়ীতে আমি কিছু ফল পাঠবো, এটাই আমার কামনা ছিল। কারণ আমি তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের অনেক ভালোবাসি। আর তারাও আমাকে ভালোবাসেন। তাই অতীতে ফল পাঠিয়ে ছিলাম এবং এবারও সঙ্গে নিয়েছি। অার জামাই বাজার করেও অালোচিত হয়েছি।

আমি (জিয়া) আমার পরিবারের জন্য ও আমার স্ত্রী’র (আখি) পরিবারের জন্য সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ কামনা করছি। এদিকে এ ব্যাপারে স্থানীয়রা বলেন, জিয়ার তার দলের প্রতিক (ধানের শীষ) এবং শ্বশুর বাড়ীর মানুষের প্রতি জিয়ার ভালোবাসা একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আমরা উভয় পরিবারের সদস্যদের মঙ্গল কামনা করছি।

প্রিন্স, ঢাকা