বিদায় ২০১৭ সাল সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

আজ ২০১৮ সালের প্রথম দিন। বিদায় ২০১৭ স্বাগত ২০১৮। ইংরেজি ক্যালেন্ডার মোতাবেক তারিখ আজ পয়লা জানুয়ারি। সাল দু’হাজার আঠারো ।

বর্তমানের পটপ্রেক্ষিতে বাস্তবতার তাগিদেই যেন চিনে নিই আজ পয়লা জানুয়ারি, নতুন সাল দু’হাজার আঠারো যাত্রা হল শুরু। স্বর্ণরাঙা উজ্জ্বল ভোরের শুরুতেই চারিদিকে ছড়িয়েছে স্বপ্নের সুষমা। আজকের ভোর এক নতুন ভোর। নতুন করে শুরুর দিন।

অতীতের সব হিংসা-বিদ্বেষ পেছনে ফেলে সৌহার্দ্য-সম্প্রীতির নতুন ভোর। এই ভোরের সাথে সাথে শুরু হলো পিছনের সব গ্লানি, বেদনা,হতাশা আর অপ্রাপ্তির বেদনা মুছে নব সম্ভাবনার স্বপ্ন নিয়ে নব রূপে যাত্রা শুরুর দিন। সারা বিশ্বের মানুষ দিনটিকে বছরের অন্য দিনগুলোর চেয়ে কিছুটা হলেও ভিন্ন চোখে দেখবে। সে চোখে থাকবে প্রত্যাশা ও স্বপ্ন।

পেছনটার অভিজ্ঞতায় প্রশ্নের অবতারণা জানা নেই, তেমন নিশ্চয় করেই বা কে জবাব দেবে সামনে রয়েছে কী? তবে কালসন্ধিক্ষণে এখন আমাদের বসবাস। কালপরিক্রমায় নববর্ষ আসে নতুন আশা নিয়ে, স্বপ্নে উদ্দীপিত হয় মানুষ।

বছরটি সাফল্যে উজ্জ্বল হয়ে উঠবে, মুছে যাবে ব্যর্থতার গ্লানি, এমন প্রত্যাশায় উজ্জীবিত হয় মন। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নববর্ষকে আবাহন করে তাঁর কবিতায় লিখেছেন- ” ছন্দে ছন্দে পদে পদে অঞ্চলের আবর্ত-আঘাতে/ উড়ে হোক ৰয়/ ধূলিসম তৃণসম পুরাতন বৎসরের যত/ নিষ্ফল সঞ্চয়”” অনেক হাসি-কান্না, সুখ-দুঃখ এবং আনন্দ-বেদনায় মেশানো ঘটনাবহুল ২০১৭ সালের শেষ সূর্য অস্ত গেছে কাল। লাখো প্রত্যাশার ঝাঁপি খুলে মানুষের অনেক প্রত্যাশায় আজ ভোরে কুয়াশা ঢাকা পূর্বাকাশে উদয় হয়েছে নতুন বছরের রক্তিম সূর্য। আর এই সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার অনুযায়ী শুরু হচ্ছে ২০১৮ সাল।

নতুন বছরকে স্বাগতম সুখ-সমৃদ্ধির প্রত্যাশায়। ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নিয়ে পথ খোঁজে সংশোধনের। ফেলে-আসা বছর জুড়ে দেশের ভেতরকার হাল হকিকত কেমনতর? তা আমাদের নিত্য দিনাতিপাতের সংবাদই তো জানান দেয়। সচেতন সবারই তা জানা। আমাদের যেমন আছে অর্জন তেমনি আছে ব্যর্থতা।

ব্যর্থতাগুলো আমরা কি কাটিয়ে উঠতে পারব নতুন বছরে? নতুন বছরে ব্যর্থতার গ্লানী থেকে মুক্ত থাকবেতো মানুষ? সৃষ্টির সেরা মানুষ প্রজাতি তো আশা নিয়েই বেঁচে থাকে। নতুন বছর বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বের মানুষের জন্য শান্তি ও সমৃদ্ধির বার্তা নিয়ে আসুক।

স্বাগত ২০১৮ এটাই সকলের আশা বিগত বছরের সব কালিমা ধুয়ে মুছে নতুন কেতন উড়াতে উড়াতে এগিয়ে যাবে সময়, সভ্যতা, হিংসা-বিদ্বেষ-হানাহানিমুক্ত রাজনীতি, অর্থনীতি আর সংস্কৃতি।

আর একান্ত করেই প্রার্থনা : নববর্ষের প্রথম দিবসে আসুক মঙ্গল-আশীর্বাদ দেশে-দেশান্তরে তাবৎ মানুষ-সাধারণের জন্যে। অনাবিল স্বপ্ন আর অফুরন্ত প্রাণোন্মাদনা নিয়ে নতুন সূর্যের আলোয় অগ্রসর হবে মানুষ। সকলে ভালো থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন আর সুন্দরে বাঁচুন এই প্রত্যাশায়। হ্যাপি নিউ ইয়ার ২০১৮

প্রিন্স, ঢাকা