কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া হচ্ছে: বিএনপি

নিউজ ডেস্ক:রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরুর পর বেশ কয়েকটি কেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ অভিযোগ করেন।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী কাওছার জামান বাবলার বরাত দিয়ে রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, ‘ভোট শুরুর আগের রাতেই শহীদুল নামে বিএনপির এক নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে গত রাতে হুমকি ধামকি ও ভয়ভীতি দেখানো হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ভোট শুরু হলে বেশ কয়েকটি কেন্দ্র থেকে ধানের শীষের পোলিং এজেন্টদের বের করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। দলের প্রার্থীদের কেন্দ্র পরিদর্শন করতে দেওয়া হচ্ছে না। ভোটারদের ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে তারা যেন ভোটকেন্দ্রে না যায়।’

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত দুদিন ধরে ক্ষমতাসীন দল ও জোটের ‘তাণ্ডবে’ রংপুরে ‘ভীতিকর অবস্থা’ বিরাজ করছে বলে দাবি করেছে বিএনপি।

রংপুর নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোট কেন্দ্র ১৯৩টি। এরমধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র ১০৮টি। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ২৪ জন পুলিশ ও আনসার নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। এদের মধ্যে ১২ জনই অস্ত্রধারী। আর সাধারণ কেন্দ্রে ২২ জন করে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন। এছাড়া ২১ প্লাটুন বিজিবি এবং র্যাসবের ৩৩টি টিম নির্বাচনী মাঠে কাজ করছে।

নির্বাচনে ৩৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ১১ জন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও সিটি করপোরেশন এলাকাকে চারটি ভাগে ভাগ করে চার জন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে দায়িত্ব পালন করছেন পুলিশ সদস্যরা।

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৭ জন, কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন। ২০৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকার এ সিটিতে মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন।