পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তে ৩০ ডিসেম্বর গণর‌্যালী

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: এবার বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বিশেষ পরিবর্তন আনার উদ্যোগ নিয়েছে ময়মনসিংহ পৌরসভা। পরিচ্ছন্ন ও সুস্বাস্থ্যের নগরী গড়ে তোলার প্রত্যয়ে আগামী বছরের প্রথম দিন (১ জানুয়ারি) থেকে শুধুমাত্র রাতে ময়লা আবর্জনা সংগ্রহ ও নিষ্কাশনের কাজ পরিচালিত হবে।

দেশের অষ্টম বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহকে একটি পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ে তুলতে জনগনের মাঝে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সর্বস্তরের মানুষ নিয়ে আগামী ৩০ ডিসেম্বর এক গণর‌্যালীর আয়োজন করেছেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামূল হক টিটু। পৌরসভার ২১টি ওয়ার্ড থেকে স্ব-স্ব এলাকার কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে ৩০ ডিসেম্বর শনিবার বেলা ১২টায় শহরের রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে এসে সমাবেশ করবে। এরপর বিশাল র‌্যালী বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করবে।

এ ছাড়াও বেসরকারী ক্লিনিক, হোটেল রেস্তোরাসহ বিভিন্ন শ্রেণীর পেশার মানুষদেও মাথে সচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে মতবিনিময় করবেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামূল হক টিটু।

রোববার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে ময়মনসিংহ পৌরসভার শহীদ শাহাবুদ্দিন মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় এ কথা জানান পৌরসভার মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু।

পৌর এলাকায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা রাতে সম্পন্নকরণ উপলক্ষে স্থানীয়ভাবে ব্যাপক প্রচারণা ও বাস্তবায়ন করতে এ সভার আয়োজন করা হয়। মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ. কে. এম. তারিকুল আলম, প্যানেল মেয়র-১ আসিফ হোসেন ডন, সাবেক প্যানেল মেয়র ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ শফিকুল ইসলাম মিন্টু, জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারন সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমন কালাম, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ময়মনসিংহ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এইচ এ গোলন্দাজ তারা, পৌরসভার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর দীপক মজুমদার, ইঞ্জিনিয়ার মোসলেম উদ্দিন, ফেরদৌস আরা মাহমুদা হেলেন, জাহান আরা খানম, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের সময় স্টাফ রিপোর্টার মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বাবুল হোসেন, কালের কণ্টের স্টাফ রিপোর্টার নিয়ামূল কবির সজল, দৈনিক লোক লোকান্তর নির্বাহী সম্পাদক সাহিদুল আলম খসরু, আতিকুল হাসান মাসুদ, সাংবাদিক শাহ মোঃ রণি প্রমূখ।

মতবিনিময় সভায় মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, ৫ লাখের বেশি জনসংখ্যার বিভাগীয় এ নগরীতে বর্তমানে প্রতিদিন ১৫০ টনের বেশি বর্জ্য তৈরি হচ্ছে। প্রতিদিন ভোর থেকে দিনব্যাপী এসব বর্জ্য শহরের যানজট অতিক্রম করে ডাম্পিং গ্রাউন্ডে নিয়ে যাওয়া হয়।

দিনের বেলায় এ কাজ করতে গিয়ে নগরীর রাস্তায় সৃষ্টি হয় দুর্গন্ধ, পরিবেশ হয় বিপর্যস্ত। এছাড়াও প্রতিদিন তীব্র যানজটে অপসারণ কাজও বাধাগ্রস্ত হয়। অনেক সময় আবর্জনা বহনকারী ট্রাকের কারণেও যানজট সৃষ্টি হয়।

তিনি বলেন, নগরীতে জনসমাগম অব্যাহতভাবে বৃদ্ধির ফলে বিশেষ করে নগরীর পাটগুদাম ব্রিজ মোড়ের যানজট এড়াতে আমরা প্রচলিত বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের সময়ে পরিবর্তন আনার উদ্যোগ নিয়েছি। আগামী পহেলা জানুয়ারি থেকে শুধুমাত্র রাতে ময়লা আবর্জনা সংগ্রহ ও নিষ্কাশনের কাজ পরিচালিত হবে। এছাড়া প্রতিটি দোকানে, অফিসে ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আবর্জনা রাখার পাত্র স্থাপন করারও আহ্বান জানান তিনি।