ব্রীজের পাটাতন ধসে পড়েছে ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল

চাটমোহর প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহর-অষ্টমনিষা সড়কের পৈলানপুর এলাকায় পুরাতন কালভার্টটি কয়েকমাস পূর্বে ধসে পড়েছে। সড়কটিতে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়লে ব্রীজের উপর কাঠের পাটাতন স্থাপন করে এলজিইডি। ফলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

কিন্তু কাঠের পাটাতন আবারও ভেঙ্গে গেছে। ফলে চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে ব্রীজটি। এমনিতেই এই সড়কে গত কয়েক মাস যাবত ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

জানা গেছে, চাটমোহর থেকে ভাঙ্গুড়া হয়ে প্রায় ১৫ কিলোমিটার পথ ঘুরে অষ্টমনিষা এলাকায় যেতে হচ্ছে ভারী যানবাহন চালকদের। হালকা যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে এ কাঠের পাটাতনের উপর দিয়ে চলাচল করছে। যে কোন সময় পাটাতন ধসে যানবাহন খালে পরে দূর্ঘটনা ঘটনা ঘটতে পারে। রয়েছে প্রাণহানীর আশংকা। আশপাশের এলাকার ১৫/১৬টি গ্রামের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ এই সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করে।

এ রাস্তায় চলাচলকারী মির্জাপুর ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক আলী আহমদ জানান, প্রতিদিন মোটরসাইকেল যোগে এ ব্রীজ পাড় হয়ে কলেজে যেতে হয়। জীবনের ঝুঁকি চলাচল করছি। মথুরাপুর গ্রামের গরু ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম জানান, এ রাস্তায় ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ছোট ছোট ট্রলিতে গরু নিয়ে ভাঙ্গা ব্রীজ পাড় হতে হয়। ভেঙ্গে যাওয়া অংশগুলোতে নিজেরাই কাঠ পেতে দিয়ে পাড় হতে হচ্ছে। প্রায়ই ছোট খাট দূর্ঘটনা ঘটছে। যে কোন সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে এমন আশংকা থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এ ব্যাপারে নজর নেই।

এলাকাবাসী দ্রুত কাঠের ভাঙ্গা পাটাতন ও ধসে যাওয়া কালভার্ট অপসারণ করে নতুন ব্রীজ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন। এব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। বাজেট পেলেই ব্রীজ নির্মাণ করা হবে।

প্রিন্স, ঢাকা