অবিলম্বে মানহানিকর মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহার করুন:ফখরুল

নিউজ ডেস্ক: সৌদি আরবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তার দুই ছেলে- তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর বিনিয়োগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্য মানহানিকর, মিথ্যা ও বানোয়াট বলে দাবি করেছে বিএনপি। অবিলম্বে এই ধরনের মানহানিকর মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহার করে করে ক্ষমা না চাইলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার সকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই মন্তব্য করেন।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, সৌদিতে খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়ার বিশাল শপিংমল ও সম্পদ পাওয়ার খবর বিদেশ থেকে এসেছে। টাকা পাচার, মানিলন্ডারিং বিএনপি এবং খালেদা জিয়ার ছেলেরা করেছে।

তিনি প্রধানমন্ত্রীকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে খালেদা জিয়া ও জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের হুমকি দেন বিএনপির এই নেতা।

তবে বক্তব্য প্রত্যাহারের সময়সীমা বা কত দিনের মধ্যে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে- এমন প্রশ্নে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সেটা সময়ই বলে দেবে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্তের নিন্দা জানান। তিনি অবিলম্বে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে ফিলিস্তিনিদের ন্যায্য দাবি মেনে নেওয়ার দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন।